eibela24.com
রবিবার, ০৭, মার্চ, ২০২১
 

 
বস্তায় আদা চাষ করে সফল নওগাঁর মোনায়েম হোসেন 
আপডেট: ০৫:১৪ pm ৩০-১১-২০২০
 
 


বস্তায় মাটি ভরাট করে আদা চাষ করে এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন নওগাঁর মোনায়েম হোসেন। বর্তমানে এই পদ্ধতিতে আদা রোপন করে লাভের আশা করছেন দিশেহারা হয়ে পড়া এই বয়লার চাতাল মালিক। প্রাথমিকভাবে একশ বস্তায় আদা চাষ করে খরচ বাদ দিয়েও প্রায় ২৭থেকে ২৮হাজার টাকা লাভ করার আশা করছেন তিনি। 

নওগাঁ সদর উপজেলায় বর্ষাইল ইউনিয়নে চক-আতিথা গ্রামে মোনায়েম হোসেন বেশ কিছুদিন আগে একটি বয়লার চাতাল গড়ে তোলেন। কিন্তু বর্তমানে জেলার অন্যান্য হাস্কিং চাতালের মত নানা কারণে তার চাতালটিও বন্ধ হয়ে গেছে। ফলে লোকসানের মুখে পড়ে দিশেহারা হয়ে পড়েন তিনি। ব্যাংকের ঋন পর্যন্ত পরিশোধ করতে পারেননি। ফলে বর্তমানে তিনি ঋনের বোঝা মাথায় নিয়ে চিন্তাগ্রস্থ জীবন যাপন করছেন। মোনায়েম হোসেনের ছেলে ভোকেশনাল ইনষ্টিটিউটে পড়–য়া শিক্ষার্থী হিমেল ইউটিউবে কোন এক দেশে বস্তায় মাটি ভরে আদা চাষের সফলতার কথা জানতে পেরে তিনি নিজেও এই উদ্যোগ গ্রহণ করে। হিমেলের পরিকল্পনা অনুযায়ী বাবা মোনায়েম হোসেন ও মা হোসনে আরা মিলে তাদের বয়লার চাতালের একটি অংশে ১শটি বস্তায় অর্ধেক মাটি ভরাট করে আদা চারা রোপন করেন। একেকটি বস্তায় ২/৩টি করে চারা রোপন করেন। প্রাথিমকভাবে মাটির সাথে কেবলমাত্র জৈব সার ব্যবহার করা হয়েছে। কোন রাসায়নিক সার ব্যবহার করা হয় নি। পরিবারের সকল সদস্য মিলে পরিচর্যা করছেন। আদা গাছগুলো বেশ ডগমগে হয়েছে।

মোনায়েম হোসেন জানান, এই ১শ বস্তা আদা চাষ করতে খরচ হয়েছে মাত্র ১হাজার ২শ টাকা। আগামী চৈত্র মাসে এই আদা উত্তোলন করা হবে। তিনি আশা করছেন প্রতিটি বস্তায় কমপক্ষে আড়াই কেজি করে আদা পাওয়া যাবে। এতে ১শ বস্তা থেকে আড়াইশ কেজি আদা পাওয়া যাবে। বর্তমানে কমপক্ষে পাইকারী বাজার মুল্য প্রতি কেজি ১শ ২০টাকা। সেই হিসেবে একশ বস্তায় উৎপাদিত আদার বাজার মুল্য ৩০হাজার টাকা। খরচ বাদ দিয়ে কমপক্ষে ২৭হাজার থেকে ২৮হাজার টাকা মোট লাভ করতে পারবেন তিনি। তিনি আরো জানান আগামী বছর তার পুরো বয়লার চাতাল জুড়ে ৫শ বস্তায় আদা চাষ করার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছেন। এই হিসেবে ৫শ বস্তায় আদা চাষ করে দেড় লাখ টাকারও বেশী আয় করতে পারবেন যা অন্যদের জন্য অনুকরনীয় হতে পারে। 

নওগাঁ সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ফারহানা নাজনীন জানান, বস্তায় মাটি ভরাট করে আদা চাষ করা কৃষকদের নিকট সম্পূর্ন একটি নতুন ধারনা। চক-আতিথা গ্রামের মোনায়েম হোসেনের বয়লার চাতালে এভাবে আদা চাষ করে মালিক মোনায়েম হোসেন সফলতা পেয়েছেন। এর অর্থ এই প্রক্রিয়ায় আদা চাষের সম্ভাবনা রয়েছে। যদি কেউ এভাবে আদা চাষে এগিয়ে আসেন কৃষি বিভাগের পক্ষ থেকে প্রযুক্তি ও প্রক্রিয়াগত ভাবে সার্বিক সহযোগিতা প্রদান করা হবে। 

নি এম/বিকাশ