eibela24.com
শুক্রবার, ২৩, অক্টোবর, ২০২০
 

 
টাঙ্গাইলে দীর্ঘ তিন মাসেও খোঁজ মেলেনি শ্রীমতি দেবী রানী সরকারের ! 
আপডেট: ১১:৫৮ pm ১৪-০৫-২০২০
 
 


দীর্ঘ তিন মাসেও খোঁজ মেলেনি শ্রীমতি দেবী রানী সরকারের। গত ২১ ফেব্রুয়ারি বাসা থেকে বের হয়ে আর ফেরত আসেননি দেবী রাণী। 

দেবী রানী সরকার টাঙ্গাইলের সখীপুর উপজেলার হাতিবান্ধা গ্রামের সন্তোষ সরকারের স্ত্রী ও মির্জাপুরের সোহাগপাড়ায় জয়নালের বাসায় ভাড়া থাকতেন।

বড় মেয়েকে নিয়ে মির্জাপুরের নাসির গ্লাসে চাকরি করতেন রাণী। নিখোঁজের পর মির্জাপুর থানার এসপি কার্যালয়ে অভিযোগ করেও কোনো সুরাহা পায়নি তার পরিবার। মাকে খুঁজে বের করতে তার ছোট মেয়ে বিথী সরকার পুলিশ প্রশাসনের কার্যালয়সহ বিভিন্ন দফতর ও কর্মকর্তার কাছে ঘুরে বেড়াচ্ছেন।

বিথী সরকার জানান, তার মা ও বড় বোন নাসির গ্লাস ফ্যাক্টরিতে চাকরি করতেন। স্কুল বন্ধ থাকায় বিথী সরকারও তার মা এবং বোনের সঙ্গে কিছুদিন নাসির ফ্যাক্টরিতে চাকরি করেছেন। চাকরির করার সুবাধে ওই ফ্যাক্টরির সিকিরিটি গার্ড মোঃ তামজিমের সঙ্গে পরিচয় হয়। পরবর্তীতে তামজিম তাকে (বিথী সরকারকে) বিয়ে করার প্রস্তাব দেন। বিয়ের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় বিভিন্ন সময় হুমকি ধামকি দিতে থাকেন। ভয়ে তার মা দেবী রাণী ও বোন শেফালী সরকার চাকরি ছেড়ে দেন। এরপরও মোঃ তামজিম বিথী সরকারের ফোনেও এসএমএসের মাধ্যমে হুমকি দেন।

গত ২১ ফেব্রুয়ারি তার মা দেবী রাণীকে ফোন করে কে বা কারা বাসার নিচে ডাকেন। তার মা বাসার নিচে আসার পর আর বাসায় ফিরে আসেনি। পরবর্তীতে তার বড় বোন শেফালী সরকার বাদী হয়ে ২৫ ফেব্রুয়ারি মির্জাপুর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

বিথী সরকার বলেন, মাকে প্রায় তিন মাস যাবৎ দেখি না। কোথায় আছে কেমন আছে তাও জানি না। মাকে খুঁজতে পুলিশ প্রশাসনসহ বড় বড় কর্মকর্তার কাছে ঘুরছি। তারাও চেষ্টা করছে মাকে খুঁজে বের করতে। মাকে ছাড়া কিছু ভালো লাগে না। আমি মাকে ফেরত চাই।

নি এম/