বুধবার, ১৭ জুলাই ২০১৯
বুধবার, ২রা শ্রাবণ ১৪২৬
 
 
বরিশালে ঠান্ডাজনিত রোগে আক্রান্ত হচ্ছে শিশু
প্রকাশ: ১০:২৬ am ০১-০১-২০১৭ হালনাগাদ: ১০:২৬ am ০১-০১-২০১৭
 
 
 


বরিশাল প্রতিনিধিঃ শীতের তীব্রতা বাড়ার সাথে সাথে বরিশালের সর্বত্র শিশুদের ঠান্ডাজনিত নিউমোনিয়া, শ্বাসকষ্ট, চোখের ভাইরাসসহ ঠান্ডাজনিত বিভিন্ন রোগের পাশাপাশি ডায়রিয়ায় আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমেই বৃদ্ধি পেয়েছে।

গত এক সপ্তাহে এসব রোগে আক্রান্ত অসংখ্য শিশুদের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া হাসপাতালগুলোর বহির্বিভাগ ও চিকিৎসকদের ব্যক্তিগত চেম্বারেও এ ধরনের রোগীর সংখ্যা কয়েকগুন বৃদ্ধি পেয়েছে।

জেলা সিভিল সার্জন ডাঃ এএফএম শফিউদ্দিন জানান, শীত মৌসুমের শুরু থেকেই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসকদের শীতজনিত রোগে আক্রান্ত শিশুদের চিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, গত এক সপ্তাহে শিশু বিভাগে শতাধিক শিশু ভর্তি হয়েছে। এরমধ্যে বেশির ভাগ শিশুই ঠান্ডাজনিত রোগে আক্রান্ত।

এছাড়া গত একমাসে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের শিশু বিভাগে ২১ শিশুর মৃত্যু হয়েছে। এরমধ্যে ঠান্ডাজনিত রোগে দুই শিশু মারা গেছে।

বরিশাল সদর হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, বহির্বিভাগে প্রতিদিন গড়ে আড়াই শতাধিক শিশু রোগীদের চিকিৎসা সেবা দেয়া হচ্ছে। তাদের মধ্যে ঠান্ডাজনিত রোগে আক্রান্ত শিশুর সংখ্যাই বেশি। অপরদিকে সরকারী হাসপাতালের চিকিৎসকদের ব্যক্তিগত চেম্বারেও ঠান্ডাজনিত রোগে আক্রান্ত শিশু রোগীর সংখ্যা কয়েকগুন বৃদ্ধি পেয়েছে।

নগরীর কালু শাহ্ সড়কের আব্দুল করিম মোল্লা চক্ষু হাসপাতালে আড়াই বছরের শিশু জুনায়েদ আহম্মেদ নিরবকে নিয়ে চিকিৎসকের কাছে আসা তার মা সীমা আহম্মেদ বলেন, শীতের তীব্রতার সাথে তার একমাত্র পুত্র সন্তানের প্রথমে ঠান্ডা লেগে সর্দি-কাশি দেখা দিয়েছে, সাথে চোখে ভাইরাস রোগ দেখা দেয়ায় তিনি তার পুত্রকে চিকিৎসকের কাছে নিয়ে এসেছেন।

জেলা সিভিল সার্জন ডাঃ এএফএম শফিউদ্দিন বলেন, মৌসুম পরিবর্তনের কারণে ঠান্ডা-কাশি-জ্বর হতেই পারে। এছাড়াও ভাইরাসজনিত রোগ ব্রঙ্কাইটিস ও চোখের রোগ হওয়ার আশঙ্কা বাড়ে।

এতে ভয় পাওয়ার কিছু নেই। তিনি আরও বলেন, যেকোন ধরনের সমস্যার দেখা দিলে তাৎক্ষনিক চিকিৎসকের শরণাপন্ন হতে হবে। কখনো এ ধরনের সমস্যায় অ্যান্টিবায়োটিক খাওয়ানো ঠিক হবেনা বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

জেলার আগৈলঝাড়া, উজিরপুর, বানারীপাড়া, গৌরনদী, মুলাদী, বাবুগঞ্জ, বাকেরগঞ্জ, হিজলা ও মেহেন্দীগঞ্জ উপজেলা হাসপাতালে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, শীত মৌসুমের শুরু থেকেই প্রতিটি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রতিদিন শীতজনিত রোগে আক্রান্ত শিশুদের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে।

 

এইবেলাডটকম/কল্যান/গোপাল

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক : সুকৃতি কুমার মন্ডল 

 খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

+8801711-98 15 52

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2019 Eibela.Com
Developed by: coder71