বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮
বুধবার, ৫ই পৌষ ১৪২৫
 
 
সনাতনী পঞ্জিকানুসারে এই দিনকে বলা হয় মহাবিষুব সংক্রান্তি
প্রকাশ: ১০:৪৪ pm ১৩-০৪-২০১৭ হালনাগাদ: ১০:৪৪ pm ১৩-০৪-২০১৭
 
 
 


ঢাকা : ‘তাপস নিঃশ্বাস বায়ে, মুমূর্ষুরে দাও উড়ায়ে, বৎসরের আবর্জনা দূর হয়ে যাক যাক যাক, এসো এসো...’। প্রকৃতির সতেজ রং আর নবসাজের দিকপাল হয়ে আসা ঋতুরাজ বসন্তও একসময় বিদায় নেয়। সঙ্গে নিয়ে আসে নতুন বছর ও নতুনত্বের আগমন।

বর্ষবিদায় এবং বর্ষবরণের এই ঐতিহ্য বাঙালির হাজার বছরের। আবহমানকাল থেকে বাংলা বছরের শেষ দিনটি পালন করা হয় চৈত্র সংক্রান্তি হিসেবে। ক্রান্তি মানে কিনারা। সংক্রান্তি মানে এক কিনারা থেকে আরেক কিনারায় যাওয়া। অর্থাৎ ক্রান্তির সঞ্চার বা সাঁতার।

পুরনো বছর ও জীর্ণতাকে বিদায়ের উৎসব যেমন চৈত্র সংক্রান্তি। তেমনি নতুন বছর ও আশাকে বরণ করার উৎসব পহেলা বৈশাখ। এদিন সূর্য এক রাশি থেকে অন্য রাশিতে গমন করে বলেই দিনটিকে সূর্য সংক্রান্তিও বলা হয়। সনাতনী পঞ্জিকানুসারে এই দিনকে বলা হয় - মহাবিষুব সংক্রান্তি। তবে সনাতনী ধর্মমতের সাথে সম্পর্কিত হলেও কালের খেয়ায় এটি রূপ নিয়েছে বাঙালির আরেক উৎসবে।

নতুন আশা, আকাঙ্খা, হাসি ও রঙের মণিকোঠায় চৈত্র সংক্রান্তি ও বর্ষবরণ এখন সম্মিলিত উৎসব। একসময় এই সংক্রান্তিকে ঘিরেই ছিল বর্ষবরণের যত আয়োজন। তবে সময়ের সাথে সাথে পহেলা বৈশাখই এখন বাঙালির বর্ষবরণের প্রধান উৎসবে পরিণত হয়েছে।

এইবেলাডটকম /আরডি

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71