বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০
বুধবার, ১৩ই কার্তিক ১৪২৭
সর্বশেষ
 
 
লাদাখে ভারতীয় সেনার গতিবিধি বদল!
প্রকাশ: ১০:৪৬ pm ০৯-১০-২০২০ হালনাগাদ: ১০:৪৬ pm ০৯-১০-২০২০
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


প্রায় ছয় মাস হতে চলল লাদাখে ভারত-চীন সংঘাতের। এরই মাঝে চীনা সেনার গতিবিধির উপর ক্রমশই নজরদারি বাড়িয়েছে ভারতীয় গোয়েন্দারা। সেই নজরদারি থেকেই বিগত কয়েক মাসে উঠে এসেছে ভারতের বেশ কিছু দুর্বলতা। সেই রিপোর্ট জমাও পড়েছে ভারতের প্রধানমন্ত্রী এবং প্রতিরক্ষামন্ত্রীর কাছে। সেই রিপোর্টের সুপারিশ অনুযায়ী এবারে নিজেদের অবস্থান শুধরে নিল ভারতীয় সেনা।

রিপোর্টগুলি জমা পড়ে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে।

জানা গেছে, প্যাংগং লেকের তীরে ফিঙ্গার ৩ এলাকার গুরুত্বপূর্ণ চূড়াগুলিতে ভারতীয় সেনা যেদিন নিজেদের অবস্থান দৃঢ় করে, তার কয়েকদিন পরই এই রিপোর্টগুলি জমা পড়েছিল কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে। রিপোর্টে গোয়েন্দাদের তরফে উল্লেখ করা হয় যে গ্রাউন্ড লেভেলে ভারতীয় সেনার প্রস্তুতি চীনের তুলনায় বাজে। এবং উঁচু এলাকায় মোতায়েন সেনারা হুমকির মুখে রয়েছেন।

তবে এই রিপোর্ট জমা পড়তেই নড়েচড়ে বসে ভারতের সেনা এবং কেন্দ্রীয় সরকার। একের পর এক পদক্ষেপে নিজেদের ভুল শুধরে নিয়ে সেনা জওয়ানদের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করা হয়। তাছাড়া কৌশলগত দিক থেকেও ভারতীয় সেনা নিজেদের অবস্থান বদল করে এবং চীনের উপর নিজেদের কর্তৃত্ব বজায় রাখার পরিস্থিতি তৈরি করে।

কী রয়েছে উল্লেখিত রিপোর্টে?
যদিও এই রিপোর্ট যখন জমা পড়েছিল, ততদিনে এই চলমান সংঘাতের চার মাস পার করে গিয়েছিল। এবং ততদিনেও এই সমস্যাগুলি কারোর নজরে না আসা একটি বড় চিন্তার বিষয়। সূত্রের খবর যে সেই রিপোর্টেই উল্লেখ করা হয় যে শীতকালেও এই সংঘাত জারি থাকবে এবং সেনার উচিত দ্রুত সেই মতো ব্যবস্থা নেওয়া। এবং এরপরই সেনার তরফে শীতকালীন সব রকম ব্যবস্থা সুনিশ্চিত করা হয় দ্রুত গতিতে।

এদিকে বিগত কয়েক মাস ধরে অনেক বৈঠক, আলোচনা হয়েছে, কিন্তু সমাধানের পথ বের হয়নি লাদাখে। তাই আসন্ন শীতে যুদ্ধের আশঙ্কা করে লাদাখ সীমান্তে রণসজ্জা প্রস্তুত করে দিয়েছে ভারতীয় সেনা। লাদাখের হাড়কাঁপানো ঠান্ডার মধ্যেও যে অস্ত্রগুলো কার্যকরী হবে, সেগুলোই সীমান্তে মোতায়েন করছে ভারতীয় সেনা।

শত্রুর পাশাপাশি লাদাখের কনকনে শীত থেকে বাঁচতে জওয়ানদের জন্য নতুন আশ্রয় তৈরির কাজ করছে ভারতীয় সেনা। শীতকালে রাতে পূর্ব লাদাখের স্বাভাবিক তাপমাত্রা মাইনাস ৩৫ ডিগ্রির আশপাশে থাকে। সঙ্গে দোসর প্রবলবেগে চলা হিমেল হাওয়া।

এছাড়া এলএসি বরাবর বিভিন্ন এলাকায় ভারতীয় এজেন্সিগুলো নজরদারি বাড়িয়েছে। নজরে রয়েছে প্যাংগং লেকসহ অরুণাচল প্রদেশের বিভিন্ন এলাকা। 

উল্লেখ্য, অগাস্টের শেষ এবং সেপ্টেম্বরের প্রথম দিকে প্যাংগং লেক এলাকায় চীনা সেনার অনুপ্রবেশের একাধিক চেষ্টা বানচাল করে দেয় ভারতীয় সেনা বাহিনী। এরপর থেকেই ভারতীয় এজেন্সি গুলো নজরদারি বাড়িয়েছে সীমান্তবর্তী এলাকায়।

সূত্রের খবর, লাদাখ থেকে অরুণাচল প্রদেশে নজরদারি বাড়ানো হয়েছে। এই সমস্ত এলাকা গুলোতে চীনা সেনা নতুন করে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করতে পারে। এমনকি অরুণাচল প্রদেশের বিপরীত দিকে চীনা সেনার গতিবিধি নজরে পড়েছে। সেই কারণেই নজরদারি বাড়ানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন এক আধিকারিক। এই সমস্ত এলাকায় চীনা সেনার ওপর করা নজরদারি চালানো হচ্ছে ভারতীয় সেনাবাহিনীর তরফে।

নি এম/

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 

 

E-mail: info.eibela@gmail.com

a concern of Eibela Ltd.

Request Mobile Site

Copyright © 2020 Eibela.Com
Developed by: coder71