শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮
শুক্রবার, ১১ই ফাল্গুন ১৪২৪
 
 
মিরসরাইয়ে ইপিজেড নির্মাণের কাজ শুরু নভেম্বরে
প্রকাশ: ০৬:৪৪ pm ২২-১০-২০১৭ হালনাগাদ: ০৬:৪৪ pm ২২-১০-২০১৭
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে দেশের বৃহত্তম রফতানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চল (ইপিজেড) নির্মাণের কাজ শুরু হচ্ছে নভেম্বরে। এজন্য রফতানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চলটির কর্তৃপক্ষকে এরই মধ্যে ১ হাজার ১৫০ একর জমি বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে। 

বেপজা সূত্রে জানা গেছে, দেশের ইপিজেডগুলোয় চাহিদা থাকলেও নতুন বিনিয়োগকারীদের প্লট বরাদ্দ দিতে পারছে না বেপজা। আশির দশকে বেপজা গঠিত হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত আটটি ইপিজেড তৈরি হলেও এগুলোর সম্প্রসারণের সুযোগ ছিল কম। ফলে বিকল্প পন্থায় প্লট বৃদ্ধির পরিকল্পনা হাতে নেয় বেপজা। এজন্য চট্টগ্রামের মিরসরাই ইকোনমিক জোনে একটি বড় ইপিজেড তৈরির প্রস্তাব দেয়া হয়। এ নিয়ে চলতি বছরের ১৮ মে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে বেজা ও বেপজার মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারকও (এমওইউ) সই হয়। চুক্তির অধীনে বেপজা অর্থনৈতিক অঞ্চল নির্মাণে বেপজাকে ৫০ বছরের জন্য ১ হাজার ১৫০ একর জমি দেয়া হয়। নভেম্বর মাসের মাঝামাঝি রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে অনুষ্ঠেয় বেপজা ইন্টারন্যাশনাল ইনভেস্টর সামিটে অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রকল্পের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বেপজার মহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) নাজমা বিনতে আলমগীর বলেন, বিনিয়োগকারীদের চাহিদা থাকলেও দেশের ইপিজেডগুলোয় প্লট খালি নেই। বেপজা মিরসরাইয়ে একটি ইকোনমিক জোন স্থাপনে বেজা কর্তৃপক্ষের সঙ্গে সমঝোতা চুক্তি করেছে। প্রস্তাবিত বেপজা ইকোনমিক জোনের আয়তন আগের আটটি ইপিজেডের অর্ধেকেরও বেশি। আনুষ্ঠানিকভাবে কার্যক্রম উদ্বোধন হওয়ার পর প্রকল্পের কাজ নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই শেষ হবে। বিনিয়োগকারীরা এরই মধ্যে প্লট নিতে আগ্রহ দেখাচ্ছেন। দেশের অন্যান্য ইপিজেডের সাফল্যের অভিজ্ঞতা থেকে বলা যায়, মিরসরাই বেপজা অর্থনৈতিক অঞ্চলও দেশের অর্থনীতিতে বড় ধরনের অবদান রাখতে যাচ্ছে।

বেপজার ইকোনমিক জোন প্রকল্পের তথ্যানুসারে জানা গেছে, প্রস্তাবিত বেপজা অর্থনৈতিক অঞ্চল চট্টগ্রাম বন্দর থেকে ৬৫ কিলোমিটার, চট্টগ্রাম শাহ্ আমানত বিমানবন্দর থেকে ৭৭ কিলোমিটার, সিইপিজেড থেকে ৭০ কিলোমিটার এবং ঢাকা জিরো পয়েন্ট থেকে ১৯৯ কিলোমিটার দূরত্বে অবস্থিত। ১ হাজার ১৫০ একর জমির মধ্যে ৪৪৬ একরে ৩০০ থেকে সর্বোচ্চ ৩৫০টি প্লট নির্মাণ করার পরিকল্পনা রয়েছে বেপজার। এসব প্লটে প্রায় সাড়ে ৪ হাজার মিলিয়ন ডলারের বিনিয়োগ ছাড়াও  মোট পাঁচ লাখ লোকের কর্মসংস্থান হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, শিল্পায়নের মাধ্যমে অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও বিদেশী বিনিয়োগকে উৎসাহিত করতে আশির দশকে যাত্রা করে বেপজা। দেশে বর্তমানে আটটি ইপিজেড রয়েছে। অন্যদিকে রফতানি ও দেশীয় কর্মসংস্থান বাড়াতে সরকার ২০১০ সালে নতুন একটি আইনের মাধ্যমে বেজা গঠন করে।


আরপি
 

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71