শনিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২০
শনিবার, ১৪ই অগ্রহায়ণ ১৪২৭
সর্বশেষ
 
 
মাধবপুরে প্রতিপক্ষের হামলায় সংখ্যালঘু পরিবারের ৫ জন গুরুতর আহত
প্রকাশ: ১০:০৯ pm ২০-১০-২০২০ হালনাগাদ: ১০:০৯ pm ২০-১০-২০২০
 
মাধবপুর প্রতিনিধি
 
 
 
 


মাধবপুরের হরিতলায় অবৈধভাবে ভুমি দখলে বাধা দেওয়ায় প্রতিপক্ষের হামলায় গর্ভবতী মহিলাসহ সংখ্যালঘু পরিবারের ৫ জন গুরুতর আহত হয়েছে। গুরুতর আহত বাদল রবিদাসকে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রেরন করা হয়েছে। মাথায় গুরুতর আঘাতপ্রপ্ত বাদল রবিদাস মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। 

অন্যান্যরা হলেন বাঘাসুরা ইউনিয়নের হরিতলা গ্রামের আশু রবি দাসের স্ত্রী রীনা রবি দাস,বাদল রবি দাসের স্ত্রী গর্ভবতী শিল্পী রবি দাস, বাবুল রবি দাসের স্ত্রী শিউরী রবি দাস, বিশ্বম্ভর রবি দাসের পুত্র ধীরেশ্বর রবি দাসকে হবিগঞ্জ ২৫০ শয্যা আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

এ ব্যাপারে গুরুতর আহত বাদল রবি দাসের ভাই অনিল রবি দাস বাদী হবিগঞ্জ মাধবপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে।

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, মাধাবপুর থানার বাগাসুরা ইউনিয়নের হরিতলা গ্রামের আশু রবিদাসের পুত্র ভুমিহীন বাদল রবিদাস হরিতলা মৌজার জে এল নং ১১,খতিয়ান নং ১,দাগ নং ৪৮৯৯ মুলে ৩৪ শতক ভুমি হবিগঞ্জ জেলা প্রশাসকের নিকট থেকে বন্দোবস্ত মোকাদ্দমা নং ৬৪৪/৮৮-৮৯ মুলে স্থায়ী বন্দোবস্ত নিয়ে ভোগ দখল করে আসছেন। এই বন্দোবস্তকৃত ভুমির মধ্যে ৩ শতক ভুমি একই গ্রামের ঠান্ডা মিয়ার পুত্র তাজুল ইসলাম ও তার স্ত্রী নাজমা বেগম গংরা সংখ্যালঘু আশু রবিদাসের পরিবারকে নিরীহ পেয়ে  জবর দখল করে সেখানে দোকানপাট তৈরী করলে আশু রবিদাস বাদী হয়ে জেলা প্রশাসক বরাবরে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করার আবেদন করেন। অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করতে জেলা প্রশাসক মাধবপুর থানার এসিল্যান্ডকে নির্দেশ দিলে তা উচ্ছেদ করা হয়। কিন্তু ভুমিখেকো তাজুল ও তার স্ত্রী তাদেরকে হয়রানী করার জন্য মিথ্যা মামলায় আশ্রয় নেয় এবং পুনরায় ভুমি দখলের পায়তারা করে। এরই জের ধরে পুর্ব পরিকল্পিতভাবে গত রবিবার বিকালে তাজুল ইসলাম তার স্ত্রী নাজমা বেগম, নিম্মর আলীর পুত্র জনব আলী তার পুত্র জসিম মিয়া, মকসুদ আলীর পুত্র আলী আশরাফ, শাহপুর গ্রামের মকবুল হোসেনের পুত্র মাহফুজ মিয়া গংরা অতর্কিতভাবে তাদের বাড়ীঘরে হামলা চালায়। এতে উল্লেখিতরা গুরুতর আহত হয়। 

সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসারত  গুরুতর আহত বাদল রবিদাস জানান, আমরা ভুমিহীন ও  সংখ্যালঘু মানুষ হওয়ার কারনে সরকার বাহাদুরের কাছ থেকে ভুমি বন্দোবস্ত নিয়ে পরিবার পরিজন নিয়ে বসবাস করে আসছি। ভুমিখেকো তাজুল ইসলাম ও তার স্ত্রীসহ অন্যান্যা আসমীরা আমাদেরকে ভিটে উচ্ছেদ করার জন্য আমাদের উপর হামলা করেছে। আমরা নিরীহ মানুষ পুলিশ প্রশাসনের কাছে এর বিচার চাই। 

নি এম/উত্তম

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 

 

E-mail: info.eibela@gmail.com

a concern of Eibela Ltd.

Request Mobile Site

Copyright © 2020 Eibela.Com
Developed by: coder71