বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০১৯
বৃহঃস্পতিবার, ৩রা শ্রাবণ ১৪২৬
 
 
প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার সিদ্ধান্ত আগামী সপ্তাহে
প্রকাশ: ০৩:৫২ pm ১৫-০৩-২০১৯ হালনাগাদ: ০৩:৫২ pm ১৫-০৩-২০১৯
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার সময়সূচি আগামী সপ্তাহে নির্ধারণ করা হবে বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একাধিক কর্মকর্তা। এছাড়া জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ আয়োজনে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা পেছালেও এপ্রিল থেকে শুরু হতে পারে লিখিত পরীক্ষা। 

মন্ত্রণালয় থেকে জানা যায়, লিখিত পরীক্ষার শতভাগ প্রস্তুতি থাকলেও ১৩ মার্চ ‘জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ হওয়ায় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ‘সহকারী শিক্ষক’ নিয়োগের লিখিত পরীক্ষা ১৫ মার্চ  পিছিয়ে দেয়া হয়। বর্তমানে নতুন করে আবারও নিয়োগ পরীক্ষার সময় নির্ধারণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। এ লক্ষ্যে আগামী সপ্তাহে মন্ত্রণালয়ে সভা করে সময়সূচি নির্ধারণ করা হবে।

এ বিষয়ে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের (ডিপিই) মহাপরিচালক এ এফ এম মনজুর কাদির বলেন, প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগের লিখিত পরীক্ষা ১৫ মার্চ থেকে শুরু করার কথা থাকলেও তা পিছিয়ে দেয়া হয়। বর্তমানে এ পরীক্ষার জন্য নতুন করে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, এ বিষয়ে আগামী সপ্তাহে সিদ্ধান্ত নিতে মন্ত্রণালয়ে সভা হওয়ার কথা রয়েছে। সভায় পরীক্ষা-সংক্রান্ত পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। পরীক্ষায় আবেদনকারী বেশি হওয়ায় কয়েকটি ধাপে নিয়োগ পরীক্ষা সম্পন্ন করা হবে। পরীক্ষার জন্য শতভাগ প্রস্তুতি সম্পন্ন রয়েছে।

জানা গেছে, এবারের পরীক্ষা সম্পূর্ণ ডিজিটালাইজড পদ্ধতিতে নেয়া হবে। নির্ধারিত জেলায় ইন্টারনেটের মাধ্যমে জেলা প্রশাসকের কাছে প্রশ্নপত্রের সব সেট পাঠানো হবে পরীক্ষার আগের রাতে । পরীক্ষার দিন সকাল ৮টায় প্রশ্নপত্র ছাপিয়ে তা কেন্দ্রে পৌঁছে দেয়া হবে।

অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা জানান, সারাদেশে ১২ হাজার পদে ২৪ লাখের বেশি আবেদনকারী হওয়ায় এবার প্রথমবারের মতো লিখিত পরীক্ষা কয়েকটি ধাপে আয়োজন করা হবে। ফলও প্রকাশিত হবে আলাদাভাবে। 

কর্মকর্তারা আরও জানান, পাশাপাশি বসা পরীক্ষার্থীদের মধ্যে কেউ যাতে একই সেট না পায় সেজন্য এবার ডিজিটাল পদ্ধতিতে প্রার্থীদের প্রশ্ন সেট নির্ধারণ করা হবে। পরীক্ষার্থীর রোল নম্বরের ওপর প্রশ্ন সেট নির্ধারণ করা হবে। এবার পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শক নিয়োগের ক্ষমতা কেন্দ্র সুপারের কাছে থাকছে না। এক প্রতিষ্ঠানের শিক্ষককে অন্য প্রতিষ্ঠানে দায়িত্ব দেয়া হবে। সেন্ট্রাল থেকে দায়িত্বপ্রাপ্ত পরিদর্শকদের শুধু দায়িত্ব বুঝে দেবেন কেন্দ্র সুপার।

নি এম/

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক : সুকৃতি কুমার মন্ডল 

 খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

+8801711-98 15 52

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2019 Eibela.Com
Developed by: coder71