সোমবার, ২৫ জুন ২০১৮
সোমবার, ১১ই আষাঢ় ১৪২৫
 
 
পাইকগাছায় শঙ্কার মধ্যদিয়ে শিবচর্তুরদশী পালিত
প্রকাশ: ০৭:৩০ pm ১৫-০২-২০১৮ হালনাগাদ: ০৭:৩০ pm ১৫-০২-২০১৮
 
খুলনা প্রতিনিধি:
 
 
 
 


খুলনার পাইকগাছায় পৌর কেন্দ্রীয় সার্বজনীন শিব মন্দির, লোকনাথ মন্দির ও কপিলমুনি শিব মন্দিরে শিবচর্তুরদশী রাত্রি পালিত হয়েছে।

১৪ ফেব্রুরায়ি বুধবার বাতিখালী সার্বজনীন শিব মন্দিরে সভা ও ধর্মীয় অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে সন্ধ্যা ৭ টায় শুরু হয়ে রাত ১টায় পূজা শেষ হয়। 
অনুরূপভাবে কপিলমুনি শিব মন্দির ও লোক নাথ মন্দিরে পূজা অর্চনার মধ্য দিয়ে শিবচর্তুরদশী পালিত হয়েছে। শিব রাত্রি আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনা জেলা পরিষদ সদস্য শেখ কামরুল হাসান টিপু। এ সময় আরও উপস্থি ছিলেন সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান বাবু কৃষ্ণপদ মন্ডল, হরিপদ বাবু গাইন (কেডি বাবু), শিব মন্দিরের প্রতিষ্ঠাতা বাবু কেষ্টপদ মন্ডল, অরুন মন্ডল, দিলিপ মন্ডল, বিধান মন্ডল, সমিরন অষ্ঠ মন্ডল, সুশান্ত মন্ডল, প্রদীপ মন্ডল, মিলন মন্ডল, আশিষ মন্ডল, হরেবিন্দু মন্ডল, দিবাশিস মন্ডল, স্বপন মন্ডল, প্রবাস মন্ডল, বিল্পব মন্ডল, তরুন মন্ডল প্রমুখ।

পূজার প্রারম্ভে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শেখ কামরুল হাসান টিপু বলেন, বাংলাদেশ মাদার অফ হিউম্যানিটি জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অসাম্প্রদায়িক চেতনায় এগিয়ে চলেছে। তিনি আরও বলেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের সোনার বাংলা গড়ার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করে চলেছে। আমি তার দীর্ঘায়ু কামনা করছি। আপনারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু কামনা করে প্রার্থনা করবেন। আমি মনে করি পৌরসভার কেন্দ্রীয় সার্বজনীন শিব মন্দিরে সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে পূজা পার্বন পালনের জন্যে মন্দিরটির প্রসার এবং সংস্কার প্রয়োজন তাই তিনি খুলনা জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে মন্দিরটির প্রসার ও সংস্কারের জন্য অর্থ সহয়তার অঙ্গিকার ব্যক্ত করেন।

আলোচনা সভায় সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান বাবু কৃষ্ণপদ মন্ডল তার বক্তব্যে প্রধান অতিথিকে দৃষ্টি আর্কষন করে বলেন, পৌরসভায় একমাত্র সার্বজনীন শিব মন্দিরটিকে উচ্ছেদ করার জন্যে উপজেলা চেয়ারম্যান স ম বাবর আলী সহ স্বার্থনেষি একটি মহল বিভিন্ন ভাবে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। আমরা সংখ্যালঘু সম্প্রদায় হিন্দু, মুসলিম, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান অসাম্প্রদায়িক চেতনায় একসাথে মিলেমিশে বসবাস করি। অতি দুঃখের বিষয় বার বার এ দেশে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত সহ মন্দির ভাংচুর এবং হামলার শিকার হতে হয়েছে সনাতন ধর্ম অবলম্বী সংখ্যালঘু সম্প্রদায়কে।

তিনি আরও বলেন, মাননীয় সংসদ সদস্য নুরুল হক সাহেবের প্রচেষ্টায় মন্দিরটি স্থাপিত হয়েছে। মন্দিরটি উচ্ছেদের ষড়যন্ত্রের ব্যাপারে তিনি অবগত আছেন এবং  আপনি জেলা পরিষদ সদস্য আপনার মাধ্যমে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের দৃষ্টি আর্কষন করে বলতে চাই এদেশে বসবাস করে যদি স্বাধীনভাবে ধর্মপালন করতে না পারি তাহলে এদেশ ছেড়ে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়কে ভারতে চলে যাওয়া ছাড়া আর কোনো উপায় থাকবে না। তাই আমরা সংলঘু সম্প্রদায় যাহাতে র্নিবিঘ্নে ধর্ম পালন সহ মন্দির উচ্ছেদের যড়যন্ত্রকারীদের থেকে  আশঙ্কামুক্ত থাকতে পারি তার জন্যে প্রসাশন সহ সরকারের র্উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ এবং দলীয় নেতৃবৃন্দের দৃষ্টি আর্কষন করছি।

নি এম/মহানন্দ/

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71