সোমবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৭
সোমবার, ৪ঠা পৌষ ১৪২৪
 
 
নারীর এক আকাশে তিনকন্যা
প্রকাশ: ০৩:১১ pm ০৪-০৬-২০১৫ হালনাগাদ: ০৩:১১ pm ০৪-০৬-২০১৫
 
 
 


বিনোদন ডেস্ক : তিন নারী৷ আলাদা সময়৷ জীবনের তিন অধ্যায়৷ তিন নারীর জীবনের তিন কাহিনিকে এক বিন্দুতে মিলিয়ে দেব পরিচালক বিথীন দাসের ছবি ‘তিনাঙ্ক’৷ আর সেই তিন অঙ্কে থাকছেন টলিপাড়ার তিনকন্যা-ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত, মুমতাজ সরকার, বিদিতা বাগ৷
এছবিতে থাকছে প্রায় ১৫০ বছরের সময় পরিক্রমা৷ তিন নারীর জীবন প্রতিনিধি হয়ে উঠবে আলাদা আলাদা সময়ের৷ ১৮৭০ সালের কাদম্বীর কথাই ধরা যাক৷ নবদ্বীপের নিতান্ত এক গ্রাম্য রমণীর সঙ্গে আচমকাই একদিন দেখা হয়ে গিয়েছিল শহুরে শিক্ষিত মৃণালের৷ কাদম্বীর জীবনের মোড় ঘুরে গিয়েছিল সেদিনই৷ মৃণালের সঙ্গে বিয়ের পর কাদম্বী শিক্ষিত হয়ে ওঠে৷ কিন্তু ১৮৮৮ তে যখন প্লেগে মৃণালের মৃত্যু হল, তখন তাকে আবার ফিরতে হল সেই নবদ্বীপে৷ ফিরে সে দেখল, তার জন্মস্থান বদলায়নি এতটুকু৷ নানা কুসংস্কারের বেড়াজাল ঘিরে রেখেছে সে ভূমি৷ যেদিন প্রতিবাদ করল কাদম্বী, সেদিনই তাকে ডাইনি বলে সাব্যস্ত করা হল৷ কাদম্বীকে শেষমেশ মরতে হয়েছিল, কিন্তু কাদম্বী চলে যায়নি৷ এক বটগাছের তলায় যখন তার মৃত্যু হয়, তখন সে ফিরে আসার কথাই বলেছিল৷Tinanko-logo

সে ফিরে আসে ঘটে দুই সময়ের অপর দুই রমণীর মধ্যে৷ একজন নলিনী৷ সামাজিক অবস্থানে সে নিম্নবিত্ত পরিবারের৷ এক ঝড়বৃষ্টির রাতে হঠাৎই তার সঙ্গে অলৌকিক কিছু ঘটনা ঘটতে থাকে৷ পরে ঘটনাক্রমে জানা যাবে, কাদম্বীর আত্মাই নলিনীকে প্রভাবিত করেছিল৷ আরও এগিয়ে চলে আসা যাক সোহনির সময়ে৷ সে ২০১৪ সালের মেয়ে, পেশায় সাংবাদিক৷ তৃতীয় বিশ্বে নারীদের অবস্থান নিয়ে কাজ করতে করতেই একদিন সোহিনী এই সূত্রে বাঁধা পড়ে৷ নিজের মধ্যে অন্য কোনও নারীর উপস্থিতি অনুভব করে সে৷ তার সহকর্মী তার হাতে তুলে দেয় কাদম্বীর ডায়রি৷ আর সেখানেই সে পায় কাদম্বীর কথা, বলা যায় যা আসলে চিরন্তন নারীত্বেরই উক্তি৷ যে উক্তিতে বাঁধা পড়ে তিনটে আলাদা সময়, তিনজন আলাদা নারী৷ কোন বিন্দুতে এসে তারা এক হচ্ছে তা তোলা থাকবে ছবিতে৷

এ আসলে নারীদের ছবি৷ শুধু নারীদের ব্যক্তিগত চাওয়া-পাওয়ার কথা নয়, সময়ের সঙ্গে নারীদের সামাজিক অবস্থার বদলে যাওয়াও উঠে আসবে এ ছবিতে৷ তিন নারী কিন্তু একসত্তা৷ সময় ও সামাজিক অবস্থান পেরিয়ে তারা কখনও এক, আবার আলাদাও৷কাহিনির সূত্র ধরেই সেই অষ্টাদশ শতক থেকে আজ অবধি সমাজের নানা চিত্র, মানুষের অবস্থান ইত্যাদিও উঠে আসবে এ ছবিতে৷ নারীদের পরিবর্তনের সূত্রেই সামাজিক বদলের রূপরেখাও ধরা পড়বে রুপোলি পর্দায়৷ তবে সবার উপরে, নারীসত্তার অভিব্যক্তি আলাদা আলাদা সময়কেও কীভাবে এক বাঁধনে বেঁধে আসলে এক কণ্ঠ করে তুলতে পারে, তিন সময়ের তিন নারী কীভাবে ধরা দিতে পারে এক অনুভবের আকাশে-তাইই উঠে আসবে রুপোলি পর্দায়৷

ছবিতে প্রধান তিন চরিত্রে আছেন ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত, মুমতাজ সরকার ও বিদিতা বাগ৷ ‘ইচ্ছে’, ‘কাগজের নৌকা’র পর আবার বিদিতাকে দেখা যাবে বাংলা ছবিতে৷ ‘ভূতের ভবিষ্যত’ ছবির পর আবার এ ছবিতে আবার ডান্স নম্বরে পারফর্ম করতে দেখা যাবে মনামী ঘোষকে৷ এছাড়াও ছবিতে আছেন ইন্দ্রাশিস রায়, শংকর চক্রবর্তী, শান্তিলাল মুখোপাধ্যায়ের মতো অভিনেতারা৷ ছবির শুটিং শুরু হবে খুব শিগগিরি৷
এইবেল ডট কম/এইচ আর
 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
Loading...
 
 
 
Loading...
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক: সুকৃতি কুমার মন্ডল

Editor: ‍Sukriti Kumar Mondal

সম্পাদকের সাথে যোগাযোগ করুন # sukritieibela@gmail.com

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

   বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ:

 E-mail: sukritieibela@gmail.com

  মোবাইল: +8801711 98 15 52 

            +8801517-29 00 01

 

 

Copyright © 2017 Eibela.Com
Developed by: coder71