শনিবার, ২৩ মার্চ ২০১৯
শনিবার, ৯ই চৈত্র ১৪২৫
 
 
কেন কালীপুজা করবেন?
প্রকাশ: ০৩:১৫ pm ৩০-১০-২০১৮ হালনাগাদ: ০৩:১৫ pm ৩০-১০-২০১৮
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


শাস্ত্র মতে, মা কালি হলেন মাতৃশক্তির রূপক। যার অন্দরে মজুত অপার শক্তি, যে শক্তি বলে যে শুধু যে আমাদের সব কষ্ট দূর হয়, তা নয়, সেই সঙ্গে মেলে আরও অনেক উপকার 

শাস্ত্র মতে, মা হলেন সব কষ্টের নিবারক। তাই তো এক মনে দেবীর আরাধনা করলে গৃহস্থের প্রতিটি কোণায় এত মাত্রায় পজেটিভ শক্তির বিকাশ ঘটে যে, যে কোনও ধরনের পারিবারিক ঝামেলা মিটে যেতে যেমন সময় লাগে না, তেমনি গৃহস্থে সুখ-শান্তির পরিবেশ বজায় থাকে। 

বিশ্বাস করা হয় যে, কালী পুজোর দিন মায়ের পুজোর আয়োজন করলে দেবী এতটাই প্রসন্ন হন যে তাঁর আশীর্বাদে অর্থনৈতিক উন্নতি ঘটতে সময় লাগে না। সেই সঙ্গে টাকা-পয়সা সংক্রান্ত সব ঝামেলাও মিটে যায় নিমেষে। 

দেবীর পুজার আয়োজন করলে পরিবারের প্রতিটি সদস্যের জীবনে পজেটিভ শক্তির ছোঁয়া লাগে। সেই সঙ্গে গৃহস্থে উপস্থিত খারাপ শক্তির প্রভাব কমতে শুরু করে। ফলে কোনও খারাপ ঘটনা ঘটার আশঙ্কা যেমন কমে, তেমনি শরীর এতটাই চাঙ্গা হয়ে ওঠে যে ছোট-বড় নানা রোগ-ব্যাধি দূরে পালাতে সময় লাগে না। 

মায়ের আশীর্বাদে যারাই আপনার ক্ষতি করতে চাইছে তাদের সবারই নিকেশ ঘটবে। শুধু তাই নয়, কেউ যদি কালো যাদুর সাহায্যে আপনার ক্ষতি করতে চায়, তাহলেও চিন্তা নেই। কারণ মায়ের শক্তি বলে কালো যাদুর প্রভাব কমতে সময় লাগে না। ফলে এই কারণে কোনও ক্ষতিই হওয়ার আশঙ্কা আর থাকে না। 

শাস্ত্র মতে যারা এক মনে মায়ের আরধনা করবেন তাদের বৈবাহিক জীবনে যেমন কোনও বাঁধা আসবে না, তেমনি সারা জীবন সপরিবারে সুখে-শান্তিতেই কেটে যাবে। 

বিশ্বাস করা হয় যারা প্রতি বছর এক বিশেষ দিনে মায়ের আরাধনা করেন, তাদের পারিবারিক জীবনে তো বটেই, সেই সঙ্গে কর্মজীবনেও খারাপ শক্তির প্রভাব কমতে শুরু করে। বিশ্বাস রয়েছে যে প্রতিদিন এক মনে মায়ের নাম নিলে জীবন পথে চলতে চলতে সামনে আসা যে কোনও বাঁধা সরে যেতেও সময় লাগে না। 

নি এম/
 

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক : সুকৃতি কুমার মন্ডল 

 খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

+8801711-98 15 52

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2019 Eibela.Com
Developed by: coder71