বুধবার, ২৪ জানুয়ারি ২০১৮
বুধবার, ১১ই মাঘ ১৪২৪
 
 
এবার বই মেলা আধাঘণ্টা বেশি খোলা থাকবে
প্রকাশ: ১১:৪৬ am ২৪-১২-২০১৬ হালনাগাদ: ১১:৪৬ am ২৪-১২-২০১৬
 
 
 


ঢাকা : দেশের সবচেয়ে বড় সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক আয়োজন অমর একুশে গ্রন্থমেলার প্রস্তুতি শুরু হয়েছে। এবার বইপ্রেমীরা প্রতিদিন আধাঘণ্টা করে বেশি সময় পাচ্ছে মেলার।

যুক্ত হচ্ছে খাবারের স্টল। প্রতিদিনের প্রকাশিত সব নতুন বই এবার এক জায়গায় একনজরে দেখে নেওয়ারও সুযোগ পাবে পাঠক-দর্শনার্থী।

সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশে মেলার পরিসর গতবারের তুলনায় কিছুটা কমিয়ে নতুনভাবে বিন্যস্ত করা হচ্ছে। বাড়ছে নিরাপত্তাব্যবস্থাও। পাশাপাশি ১৯৭৪ সালের পর আবারও একাডেমি প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে আন্তর্জাতিক সাহিত্য সম্মেলন। এতে যোগ দেবেন বিশ্বের বিভিন্ন দেশের খ্যাতিমান কবি-সাহিত্যিকরা।

বাংলা একাডেমির আয়োজনে একাডেমি প্রাঙ্গণ ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ১ ফেব্রুয়ারি শুরু হবে মাসব্যাপী অমর একুশে গ্রন্থমেলা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বইমেলা ও আন্তর্জাতিক সাহিত্য সম্মেলন উদ্বোধন করবেন।

মেলায় অংশ নেওয়ার জন্য প্রকাশকদের জন্য আগামী ২৬ থেকে ২৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত ফরম বিতরণ করা হবে। ১৬ জানুয়ারি স্টল বরাদ্দের লটারি অনুষ্ঠিত হবে এবং পরের দিন প্রকাশনা সংস্থাগুলোকে স্টল বুঝিয়ে দেওয়া হবে।

মেলার প্রস্তুতি প্রসঙ্গে আয়োজক কমিটির সদস্যসচিব ড. জালাল আহমেদ বলেন, ‘এবার আমরা একটু আগেই মেলার প্রস্তুতি শুরু করেছি। যাতে মেলা উদ্বোধনের অন্তত পাঁচ দিন আগেই মেলার সাজসজ্জার আয়োজন সম্পন্ন করা যায়।’

বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান বলেন, এবারের মেলা অন্যান্যবারের চেয়ে আকর্ষণীয় হবে। সবচেয়ে আকর্ষণীয় দিক হবে আন্তর্জাতিক সাহিত্য সম্মেলন। এর আগে ১৯৭৪ সালে বাংলা একাডেমিতে সাহিত্য সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছিল, যার উদ্বোধন করেছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। এবারের সম্মেলনে যুক্তরাজ্য, জার্মানি, ফ্রান্স, রাশিয়া, পুয়ের্তোরিকো, চীন, অস্ট্রিয়া, জাপান থেকে দশজন খ্যাতিমান কবি-সাহিত্যিক অংশ নেবেন। বাংলাদেশ ও পশ্চিমবঙ্গের খ্যাতনামা প্রাবন্ধিকরা বিশেষ অধিবেশনে যোগ দেবেন।

জানা গেছে, গতবারের চেয়ে এবার মেলার সময়সীমা আধাঘণ্টা বাড়ানো হবে। গতবার মেলার সময় ছিল বিকেল ৩টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত। এবার রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত খোলা থাকবে। এবার সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশের মেলার পরিসর কিছুটা কমিয়ে রাস্তার কাছাকাছি নিয়ে আসা হবে। গতবারের মতো অতিরিক্ত ফাঁকাভাব থাকবে না মেলা প্রাঙ্গণে। গতবারের ১৫টি চত্বর থেকে কমিয়ে এবার ১২টি চত্বরে ভাগ করা হবে। যার প্রতিটিতে থাকবে একটি করে প্যাভিলিয়ন।

ফাঁকা প্রাঙ্গণে দর্শনার্থীদের বসার জন্য থাকবে সুব্যবস্থা। বৃষ্টির ঝাপটা এড়াতে এবার প্রতিটি স্টলে ত্রিপলের বদলে টিনের ছাউনি দেওয়া হবে। পরিসর কমলেও স্টল কমবে না। নিরাপত্তার জন্য এবার অগ্নিবীমার পাশাপাশি সাইক্লোন ও দাঙ্গাহাঙ্গামাজনিত সৃষ্ট সমস্যাও বীমার আওতায় আনা হচ্ছে। স্টল ভাড়া কিছুটা বাড়ছে।

১ জুলাই গুলশানে জঙ্গি হামলার পর এবারের মেলায় নিরাপত্তার ব্যবস্থা আগের যেকোনোবারের চেয়ে জোরদার কবা হবে বলে একাডেমি কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে। জানা গেছে, এবার সিসি টিভির আওতায় আসবে শাহবাগ-দোয়েল চত্বর এবং টিএসসি-শামসুন্নাহার হল চত্বরসহ পুরো প্রাঙ্গণ।

মেলায় প্রকাশিত প্রতিদিনের নতুন বই প্রকাশের তথ্য এতদিন তথ্যকেন্দ্র থেকে মাইকে প্রচার করা হতো। এবার মেলার বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে একটি বিশেষ স্টল তৈরি করা হবে। যেখানে প্রতিদিনকার প্রকাশিত বই প্রদর্শন করা হবে।

এবারের মেলার সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশে দুটি খাবারের দোকান থাকবে। এগুলো পরিচালনা করবে বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন।

এইবেলাডটকম/এএস

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
Loading...
 
 
 
Loading...
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71