eibela24.com
শনিবার, ২৮, নভেম্বর, ২০২০
 

 
চট্টগ্রামে মধ্যরাতে তরুণীকে তুলে নিয়ে গনধর্ষণ 
আপডেট: ১১:২০ pm ০৯-১০-২০২০
 
 


চট্টগ্রাম নগরীর চান্দগাঁওতে এক তরুণী সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। 

বৃহস্পতিবার (৮ অক্টোবর) দিবাগত রাত সাড়ে ১১টার দিকে রাঙ্গুনিয়া থেকে নগরীতে ফেরার পথে মৌলভী পুকুর পাড় এলাকায় অটোরিকশা থেকে নামিয়ে এ সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনা ঘটায়। গভীর রাতে নির্জন সড়কে আড়াই ঘণ্টা সময়ের মধ্যে অন্তত ১০ জন ওই তরুণীকে ধর্ষণ করেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ঘটনার সঙ্গে জড়িত ৭ পুরুষ ও এক নারীকে ইতোমধ্যে পুলিশ আটক করেছে। 

আটককৃতরা হলেন- সিএনজি অটোরিকশাচালক জাহাঙ্গীর আলম (৩৮), অটোরিকশাচালক মো. ইউসুফ (৩২), মো. রিপন (২৭), মো. সুজন (২৪), অটোরিকশাচালক দেবু বড়ুয়া (৩১), দোকানদার মো. শাহেদ (২৪), অটোরিকশাচালক রিন্টু দত্ত বিপ্লব (৩০) ও মনোয়ারা বেগম (৫৫)। গ্রেপ্তারকৃত মধ্যে অটোরিকশাচালক জাহাঙ্গীর পুলিশের সোর্স। রিপন ও সুজন বখাটে এবং মনোয়ারা বেগম গৃহিণী বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ধর্ষণের ঘটনা এবং অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারের বিষয় জানাতে শুক্রবার বিকেলে সংবাদ সম্মেলনে আসেন নগর পুলিশের উপ-কমিশনার (ডিসি-উত্তর) বিজয় কুমার বসাক। 

পুলিশ কর্মকর্তা বিজয় কুমার বসাক জানান, আনুমানিক ২২ বছর বয়সী তরুণী বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে সিএনজি অটোরিকশাযোগে রাঙ্গুনিয়া উপজেলায় তার গ্রামের বাড়ি থেকে চট্টগ্রাম নগরীর চকবাজারে বাসার উদ্দেশে রওনা দেন। রাত ১১টার দিকে কাপ্তাই রাস্তার মাথায় অটোরিকশা থেকে নেমে চকবাজারে যাবার জন্য রিকশায় ওঠেন। এসময় সিএনজি অটোরিকশাযোগে অভিযুক্ত কয়েকজন ওই রিকশার পিছু নেয়। রাত সাড়ে ১১টার দিকে চান্দগাঁও মৌলভী পুকুর পাড় এলাকায় জনৈক আনোয়ার সাহেবের চতুর্থ তলা ভবনের ডান পাশের গলিতে নিয়ে অন্তত ১০ জন মিলে তাকে ধর্ষণ করে। তাদের কাছ থেকে ছাড়া পেয়ে ভোর ৪টার দিকে তরুণী নিজেই চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে যান। হাসপাতাল থেকে খবর পেয়ে চান্দগাঁও থানা পুলিশ সেখানে গিয়ে আক্রান্ত তরুণীর অভিযোগ নেন।

এরপর অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারে অভিযান শুরু করে পুলিশ। চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলা থেকে জাহাঙ্গীর আলমকে (৩৮) গ্রেপ্তার করে। বাকি সাতজনকে নগরীর বিভিন্ন এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

নি এম/