eibela24.com
শুক্রবার, ০৪, ডিসেম্বর, ২০২০
 

 
ভারতীয় সেনার উদ্যোগে কাশ্মীরের বেকার যুবকদের জন্য 'চাকরি মেলা'
আপডেট: ১১:০৯ pm ০৭-০৯-২০২০
 
 


ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিলের পর কাশ্মীর উপত্যকায় শান্তির সুবাতাস বইছে। লেগেছে উন্নয়নের হাওয়া। তারই অংশ হিসেবে উত্তর কাশ্মীরের জেলা কুপওয়ারার শিক্ষিত বেকার যুবকদের জন্য ক্যারিয়ার বাছাই বিষয়ক পরামর্শ এবং জব ফেয়ারের আয়োজন করে ভারতীয় সেনাবাহিনী। অনুষ্ঠান শেষে ৯ জন কাশ্মীরি যুবককে সম্মানজনক চাকরিও দেওয়া হয়েছে।

গত ৩০ আগস্ট ভারতীয় সংবাদ সংস্থা এএনআইয়ের বরাতে ইয়াহু নিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভারতীয় সেনা উদ্যোগে আয়োজিত জব ফেয়ারে কাশ্মীরের কুপওয়ারা জেলার লোলাব উপত্যকার যুবকদের সঙ্গে বিশেষজ্ঞরা নিবিড় আলোচনা করেন এবং তাদের মর্যাদা ও শান্তিপূর্ণ জীবনের গুরুত্ব ব্যাখ্যা করেন।

কাশ্মীরি ওই যুবকদের সম্মানজনক চাকরি পেতে বিভিন্ন দক্ষতা উন্নয়ন কেন্দ্র, এনজিও এবং সিভিল এজেন্সির সঙ্গে যোগাযোগ করিয়ে দেয় ভারতীয় সেনাবাহিনী।

২৮ আরআর-এর সিও কর্নেল রাজকুমার মহাজনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে লোলাব উপত্যকার বিভিন্ন শ্রেণিপেশার অধিবাসীরা অংশ নেন। অনুষ্ঠানে ৯ যুবককে কাশ্মীর উপত্যকার হোটেল, পেট্রোলিয়াম ও পর্যটন শিল্পের মতো বিভিন্ন খাতে চাকরির প্রস্তাব দেয় এজেন্সিগুলো। অনুষ্ঠান আয়োজনে সহযোগিতা করে এনজিও সংস্থা ইনিশিয়েটিভ ফর পিস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট।

সংবাদ সংস্থা এএনআই-কে কর্নেল রাজকুমার মহাজন বলেন, উপত্যকায় শান্তি বজায় রাখতে আমরা ৯ যুবককে ভারতজুড়ে হোটেল, পেট্রোল পাম্প ও তুলাশিল্পের মতো বিভিন্ন খাতে চাকরি দিয়েছি। এই চাকরি তাদের পরিবার নিয়ে সচ্ছল জীবনযাপনে সহায়তা করবে।

চাকরি পাওয়া যুবকদের পরিবার ভারতীয় সেনাবাহিনীর এই প্রচেষ্টার প্রশংসা করে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছে। অনুষ্ঠানে উপস্থিত গণ্যমান্য ব্যক্তিরাও ভারতীয় সেনাবাহিনীর গৃহীত উদ্যোগের প্রশংসা করেন এবং সেনাবাহিনীকে নিয়মিত এ ধরনের আয়োজনের অনুরোধ জানান।

চাকরিপ্রাপ্ত এক যুবক বলেন, ভারতীয় সেনাবাহিনীর কাছে আমরা খুবই কৃতজ্ঞ যে তারা আমাদের দারুণ সুযোগ দিয়েছে। আমাদের মতো পরিবারের সদস্যদের জন্য এমন সুযোগ দুর্লভ। চাকরির এই সুযোগ আমাদের পরিবারকে উন্নত করতে সহায়তা করবে।

নি এম/