মঙ্গলবার, ২৫ জুলাই ২০১৭
মঙ্গলবার, ১০ই শ্রাবণ ১৪২৪
সর্বশেষ
 
 
কমলা চাষে সফল সাংবাদিক মোস্তাক
প্রকাশ: ০৪:৪৩ pm ২৮-১২-২০১৬ হালনাগাদ: ০৪:৪৩ pm ২৮-১২-২০১৬
 
 
 


খুলনা প্রতিনিধিঃ নিয়মিত লেখালেখি, প্রেসক্লাবে সহপাঠীদের সাথে সঙ্গ, পরিবারের কে সময় দেওয়া, এর মাঝে নিজ হাতে বাড়ি পরিপাটি করে সাজানো দেশী বিদেশী বিভিন্ন প্রজাতির ফলজ বৃক্ষ দিয়ে।

বাড়িতে শতাধিক বিভিন্ন প্রজাতির কবুতর পালন। চার সদস্যের পরিবার। সবমিলিয়ে বাড়িটি একটি ছোট্ট শান্তির নিড়। লবণাক্ত মাটিতে কমলা ও আঙ্গুরসহ অন্যান্য ফলজ বৃক্ষ চাষ করে সফল হয়েছেন খুলনার কপিলমুনি সাংবাদিক জিএম মোস্তাক আহমেদ।

চারিদিক থেকে প্রাচীর বেষ্টিত পরিপাটি করে সাজানো গোছানো একটি ছোট্ট বাড়ি। বাড়িতে প্রবেশ করতেই চোখে পড়ে দেশী-বিদেশী বিভিন্ন ফলজ বৃক্ষ।

বসতঘর ছাড়া ফাঁকা সবটুকু জায়গায় লাগানো কমলা, আঙ্গুর, ছবেদা, লিচু, আম, জাম ও জামরুল সহ বিভিন্ন প্রকার ফলের গাছ। যেন সবুজের সমারহ।

তার মধ্যে আবার পালন করছেন দু’শতাধিক কবুতর ও মুরগি। বাড়ির আঙ্গিনা ঘুরে ফিরে দেখার মাঝে কথা হয় সাংবাদিক মোস্তাক এর সাথে তিনি জানান, লেখা পড়ার এক পর্যায় ১৯৮৩সালের কোনো এক সময় সাংবাদিকতায় পদার্পণ করেন। আর সেই থেকে লেখালেখির সাথে আছেন।

পাশাপাশি দীর্ঘ দিনের মনে লালিত শখকে বাস্তব রুপ দিতে বসত বাড়ির আঙ্গিনায় শুরু করেন ফলজ বৃক্ষ রোপণ ও কবুতর পালন।

প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে পরিচর্চায় ব্যস্ত থাকেন গাছগাছালি আর পালিত পাখিদের সেবায়। এ ভাবে চলছে প্রায় এক দশকের বেশি সময় ধরে।

বর্তমানে তাকে অনুকরণ করে এলাকার অনেকে সাবলম্বী হয়েছেন। বর্তমানে সাংবাদিক মোস্তাক খুলনার কপিলমুনি প্রেসক্লাবের কোষাধ্যক্ষ।

পাইকগাছা উপজেলার কাশিমনগর গ্রামে বাড়িতে প্রবেশ করতেই উঠানে চোখে পড়ে কমলা গাছ। গাছটির উচ্চতা প্রায় ৪-৫ফুট। গাছটিতে ভোরে আছে কাচা হলুদ রঙের কমলা।

পাকা কমলার ভারে ডাল গুলো নুয়ে পড়ছে। আকারেও বেশ বড়। কমলা সাধারণত বিদেশী ফল। বাংলাদেশেও এখন অনেক জায়গায় কমলা চাষ হচ্ছে।

তবে দক্ষিণাঞ্চলের লবণাক্ত মাটিতে কমলা চাষ অনেকটা কষ্টসাধ্য ব্যাপার। উৎসক মানুষ সাংবাদিকের বাড়িতে উৎপাদিত কমলালেবু দেখতে আসছেন। যতদুর জানাগেছেন উৎপাদিত কমলা লেবু ভারতের নাগ প্রজাতির। দেখতে সুন্দর আকারে বেশ বড় এবং খেতে খুবই সু-স্বাদু।

সাংবাদিক মোস্তাক এইবেলা ডটকমকে আরো জানান, স্থানীয় এক নার্সারী থেকে কয়েক বছর আগে কমলার চারা সংগ্রহ করেন। গত বছর থেকে লেবু আসা শুর হয়।

প্রতিদিন বাড়িতে উৎসক মানুষ আসছেন কমলা লেবু দেখতে। তিনি আশা করেন, সরকারের কৃষি বিভাগ এ ব্যাপারে যদি উদ্যোগী হন তাহলে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে ফসলি জমি ও বাড়ির আঙ্গিনায় উন্নতমানের কমলা লেবু উৎপাদন সম্ভব।

যা এ অঞ্চলের চাহিদা মিটিয়ে বাহিরে বিক্রি সম্ভব হবে। আর সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগের সহযোগীতা পেলে বাণিজ্যিক ভিত্তিতে উন্নত মানের আঙ্গুর, আপেলসহ অন্যান্য ফলজ বৃক্ষ রোপণে আগ্রহ প্রকাশ করেন সাংবাদিক জিএম মোস্তাক আহমেদ।

 

এইবেলাডটকম/মহানন্দ/গোপাল

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক: সুকৃতি কুমার মন্ডল

Editor: ‍Sukriti Kumar Mondal

সম্পাদকের সাথে যোগাযোগ করুন # sukritieibela@gmail.com

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

   বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ:

 E-mail: sukritieibela@gmail.com

  মোবাইল: +8801711 98 15 52 

            +8801517-29 00 01

 

 

Copyright © 2017 Eibela.Com
Developed by: coder71