বৃহস্পতিবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৭
বৃহঃস্পতিবার, ৯ই অগ্রহায়ণ ১৪২৪
 
 
শবেবরাতে ঝাল ও মিষ্টি
প্রকাশ: ০৮:৫৬ pm ০২-০৬-২০১৫ হালনাগাদ: ০৮:৫৬ pm ০২-০৬-২০১৫
 
 
 


লাইফ-স্টাইল ডেস্কঃ পবিত্র শবে বরাতের ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মাঝে সৌহার্দ্যের নমুনাস্বরূপ পড়শি ও অতিথি আপ্যায়ন করা হয় নানারকম মুখরোচক খাবারের মাধ্যমে। পবিত্র এই দিনটিকে উপলক্ষ করে ঝাল ও মিষ্টিজাতীয় ৮ পদের রেসিপি  নিয়ে এবারের আয়োজন।

কুলচা রুটি

উপকরণ: ময়দা আধা কেজি, ইস্ট ২ চা চামচ, চিনি ২ চা চামচ, লবণ পরিমাণমতো, তরল দুধ পরিমাণমতো (ময়দা মাখাবার জন্য), তেল ২ টেবিল চামচ, সিদ্ধ আলু চটকানো ৩টা, জিরা গুঁড়া সিকি চা চামচ, চিলিফেক্স আধা চা চামচ, টেস্টিং সল্ট সিকি চা চামচ (ইচ্ছা), লবণ পরিমাণমতো।
প্রণালি: ময়দায় ইস্ট, চিনি, লবণ ও পরিমাণমতো তরল দুধ দিয়ে মেখে নিন ভালো করে। এবার তেল দিয়ে আবার মাখুন। এবার ঢেকে রাখুন ২ ঘণ্টা। ফুলে যখন দ্বিগুণ হবে পরিমাণ মতো রুটির খামির নিয়ে আলু+জিরা গুঁড়া+চিলি ফেক্স+লবণ+টেস্টিং সল্ট একসাথে মেখে এই মিশ্রণ পুর খামিরের ভেতরে দিয়ে গোল করে রুটি বেলে নিন। এবার তাওয়ায় সেঁকে নিন। গরম গরম মাংস দিয়ে পরিবেশন করুন।

গরুর মাংসের ভুনা

উপকরণ: গরুর মাংস ১ কেজি, আদা বাটা ১ টেবিল চামচ, রসুন বাটা ২ চা চামচ, সিরকা ১ টেবিল চামচ, ধনে গুঁড়া ১ চা চামচ, হলুদ গুঁড়া আধা চা চামচ, মরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ, টমেটো কুচি ২টা, পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ, মৌরি গুঁড়া আধা চা চামচ, আস্ত গরম মসলা পরিমাণমতো, তেল আধা কাপ, কাঁচা মরিচ ৪/৫টা, লবণ পরিমাণমতো, তেজপাতা ২টা, সরিষা বাটা ১ টেবিল চামচ, জিরা বাটা আধা চা চামচ।

প্রণালি: হাঁড়িতে তেল দিয়ে গরম হলে পেঁয়াজ কুচি দিন। এবার পেঁয়াজ নরম হলে টমেটো কুচি দিন। তারপর আস্ত গরম মসলা ও তেজপাতার ফোড়ন দিন। তারপর মৌরি গুঁড়া বাদে উপরের সব বাটা ও গুঁড়া মসলা দিয়ে মসলা কষিয়ে নিন। এবার টুকরা করা মাংস ঢেলে ভালো করে নাড়াচাড়া করুন। তারপর সিরকা দিয়ে নেড়ে মৃদু আঁচে ঢেকে দিন পরিমাণমতো পানি দিয়ে। মাংস সিদ্ধ হয়ে তেলের উপর উঠে এলে মৌরি গুঁড়া ও কাঁচা মরিচ দিয়ে কিছুক্ষণ রেখে চুলা বন্ধ করে দিন। এবার পরিবেশন পাত্রে ঢেলে সাজিয়ে নিন।

দই মাটন

উপকরণ: খাসির মাংস ২ কেজি, আদা বাটা ২ টেবিল চামচ, রসুন বাটা ২ টেবিল চামচ, টক দই ১ কাপ, পেঁয়াজ বাটা আধা কাপ, বেরেস্তা ৪ টেবিল চামচ, হলুদ গুঁড়া ১ চা চামচ, ধনে গুঁড়া ১ চা চামচ, মরিচ গুঁড়া ২ চা চামচ, পোস্ত বাটা ২ টেবিল চামচ, জিরা গুঁড়া ১ চা চামচ, গরম মসলার গুঁড়া আধা চামচ, এলাচ ৫টি, দারুচিনি ৫ টুকরা, লবঙ্গ ৫টি, তেল ১ কাপ, কাঁচামরিচ ৫/৬টা, লবণ পরিমাণমতো।

প্রণালি: বেরেস্তা, গরম মসলা গুঁড়া, কাঁচা মরিচ ও আস্ত গরম মসলা বাদে উপরের সব উপকরণ মাংসের সাথে ভালো করে মেখে নিন ২ টেবিল চামচ তেল দিয়ে। এবার হাঁড়িতে তেল দিয়ে গরম হলে আস্ত গরম মসলার ফোড়ন দিয়ে মাখানো মাংস ঢেলে দিন। এবার নেড়েচেড়ে ঢেকে দিন মৃদু আঁচে। মাংসের পানি শুকিয় এলে ভালো করে কষিয়ে নিন। এবার পরিমাণমতো গরম পানি দিয়ে ঢেকে দিন। মাংস প্রায় সিদ্ধ হয়ে তেলের উপর উঠে এলে বাকি উপকরণ দিয়ে দমে রাখুন ৭/৮ মিনিট। তারপর নামিয়ে পরিবেশন পাত্রে ঢেলে নিন।

ডিম ও ক্যাপসিকাম পোলাও

উপকরণ: পোলাওয়ের চাল ১ কেজি, ডিম ৮টা, বাদাম বাটা ১ টেবিল চামচ, রসুন বাটা ২ চা চামচ, পোস্ত দানা বাটা ১ টেবিল চামচ, কাজু বাদাম বাটা ১ টেবিল চামচ, টক দই আধা কাপ, জিরা গুঁড়া আধা চা চামচ, লবণ পরিমাণমতো, গরম মসলা গুঁড়া আধা চা চামচ, জয়ফল, জয়ত্রী ও গোলমরিচ গুঁড়া আধা চামচ, এলাচ ৩টি, দারুচিনি ৩ টুকরা, লবঙ্গ ৪টি, গরম পানি ৬ কাপ, তরল দুধ ১ কাপ, কিশমিশ ১ টেবিল চামচ, বেরেস্তা আধা কাপ, পেঁয়াজ বাটা ৪ টেবিল চামচ, তেজপাতা ২টি, চিনি ১ চা চামচ, ফ্রেস ক্রিম ২ টেবিল চামচ, পেঁয়াজ কুচি ২ টেবিল চামচ, ক্যাপসিকাম ৩ রঙের অর্ধেকটা করে, ঘি ৩ টেবিল চামচ, তেল ১ কাপ।

প্রণালি: ডিম সিদ্ধ করে খোসা ফেলে গায়ে আঁচড় কেটে নিন। এবার প্যানে পরিমাণমতো তেল ও ঘি দিয়ে ডিম হালকা ভেজে নিন। তারপর পেঁয়াজ বাটা, অর্ধেক আদা রসুন বাটা, কাজু বাদাম বাটা, পোস্ত বাটা ও টকদই দিয়ে মসলা কষিয়ে ১ কাপ গরম পানি দিন। ফুটে উঠলে ডিম ও লবণ দিয়ে ঢেকে দিন। কিছুক্ষণ পর ঝোল ঘন হয়ে এলে সব গুঁড়া মসলা, ফ্রেশ, ক্রিম, আস্ত কাঁচা মরিচ, চিনি, ক্যাপসিকাম ও কিশমিশ দিয়ে আরও কিছুক্ষণ রেখে তেলের উপরে উঠে এলে নামিয়ে নিন। অন্য একটি হাঁড়িতে তেল ও ঘি দিয়ে পেঁয়াজ কুচি দিন, বাদামী হলে আস্ত গরম মসলা ও তেজপাতার ফোড়ন দিয়ে আদা-রসুন বাটা দিয়ে নেড়েচেড়ে ধুয়ে রাখা পোলাওর চাল দিয়ে ভুনে গরম পানি, তরল দুধ ও লবণ দিয়ে ঢেকে দিন। পানি শুকিয়ে এলে রান্না করা ডিম, ক্যাপসিকাম ও বেরেস্তা মিশিয়ে ১০/১৫ মিনিট দমে রাখুন। তারপর পরিবেশন পাত্রে ঢেলে নিন।

আলুর হালুয়া

উপকরণ: আলু বাটা ৩ কাপ (সিদ্ধ করে বাটা), ডিম ২টা, চিনি দেড় কাপ, কনডেন্সড মিল্ক আধা কাপ, তরল দুধ ১ কাপ, ঘি আধা কাপ, এলাচ গুঁড়া সিকি চা চামচ, কিশমিশ ২ টেবিল চামচ, বাদাম কুচি ২ টেবিল চামচ, কেশর সিকি চা চামচ, দারুচিনি ৩ টুকরা, গোলাপের পাপড়ি কয়েকটি।

প্রণালি: ডিম ভালো করে ফেটে নিন। এবার বাটা আলুর সাথে দুধ, ডিম, কনডেন্স মিল্ক ভালো করে মেখে নিন। একটা কড়াইতে ঘি দিয়ে দারুচিনির টুকরা দিন। তারপর আলুর মিশ্রণ দিয়ে ভালো করে ভুনে নিন। এবার চিনি, ১ টেবিল চামচ তরল দুধে কেশর ভিজিয়ে রাখুন। তারপর এলাচ গুঁড়া দিন। ঘন হয়ে এলে কিশমিশ, বাদাম কুচি ও কেশর দিয়ে নাড়ুন। হালুয়া প্যানের গা ছেড়ে এলে নামিয়ে নিন। পরিবেশনের সময় গোলাপের পাপড়ি দিয়ে সাজিয়ে নিন।

মুগডালের হালুয়া

উপকরণ: মুগডাল বাটা ৪ কাপ, ক্ষীরসা আধা কাপ, গুঁড়া দুধ আধা কাপ, ঘি আধা কাপ, চিনি পরিমাণমতো, পেস্তা বাদাম কুচি ৩ টেবিল চামচ, চিনি পরিমাণমতো, পেস্তা বাদাম কুচি ৩ টেবিল চামচ, কিশমিশ ২ টেবিল চামচ, এলাচ ৩টি, দারুচিনি ৪ টুকরা, জাফরান আধা চা চামচ, গোলাপ এসেন্স সামান্য।

প্রণালি: মুগডাল সিদ্ধ করে বেটে নিন। এবার প্যানে ঘি দিয়ে এলাচ ও দারুচিনি দিন। তারপর মুগডাল বাটা দিয়ে ভালো করে নেড়েচেড়ে দিন। ১০/১৫ মিনিট কষানোর পর চিনি, ক্ষীরসা ও গুঁড়া দুধ দিন। আবার নাড়ুন। হালুয়া প্রায় হয়ে এলে বাদাম, কিশমিশ, জাফরান ও গোলাপ এসেন্স দিন। তারপর ঘন আঠালো হয়ে প্যানের গা ছেড়ে এলে হালুয়া নামিয়ে নিন। ঠাণ্ডা হলে হাতে ঘি মেখে গোল গোল করে ছাঁচের ছাপ দিন অথবা ইচ্ছামতো ডিজাইন করুন।

ছানা ও বেসনের হালুয়া

উপকরণ: ছানা ২ কাপ, বেসন আধা কাপ, চিনি পরিমাণমতো, ঘি আধা কাপ, কনডেন্স মিল্ক আধা কাপ, পোস্তা বাদাম ও কাজু বাদাম কুচি ৩ টেবিল চামচ, আমন্ড ৫/৬টি, এলাচ ২টি, দারুচিনি ২ টুকরা, লাল রং সামান্য, তরল দুধ ১ কাপ, মাওয়া ৩ টেবিল চামচ, গোলাপ এসেন্স সামান্য।
প্রণালি: প্যানে ঘি, এলাচ, দারুচিনি ও বেসন দিয়ে ভালো করে ভেজে নিন। এবার তরল দুধ গিয়ে ভালো করে নেড়ে দিন যেন দলা না বাঁধে। এবার চিনি, ছানা ও কনডেন্স মিল্ক দিয়ে ভালো করে নেড়ে নিন। তারপর নেড়েচেড়ে মাওয়া, কিশমিশ ও বাদাম কুচি দিন। এবার গোলাপ এসেন্স ও সামান্য লাল রং দিয়ে নেড়ে পরিবেশন পাত্রে ঢেলে নিন। তারপর আমন্ড দিয়ে সাজিয়ে নিন।

মাসকট হালুয়া

উপকরণ: নারিকেল বাটা ১ কাপ, কাজু বাদাম, পেস্তা বাদাম ও কাঠ বাদাম বাটা আধা কাপ, ঘন দুধ আধা কাপ, ছানা ১ কাপ, মাওয়া আধা কাপ, ঘি আধা কাপ, চিনি দেড় কাপ, এলাচ গুঁড়া আধা চা চামচের একটু কম, গোলাপ জল ১ টেবিল চামচ (ইচ্ছা), দারুচিনি ৩ টুকরা, সবুজ ফুড কালার সিকি চা চামচ, তবক পরিমাণমতো।

প্রণালি: নারিকেল, বাদাম বাটা, ছানা ও ঘন দুধ একসাথে মিশিয়ে নিন। এবার প্যানে ঘি দিন, গরম হলে দারুচিনির ফোড়ন দিন। তারপর ছানা ও নারিকেলের মিশ্রণ ঢেলে নাড়ুন। ভালো করে ভুনে নিন। এবার চিনি দিন। মাওয়া, গোলাপ জল, এলাচ গুঁড়া দিয়ে নাড়ুন। হালুয়া প্যানের গা ছেড়ে এলে সবুজ রং দিন। এবার একটি সমান প্লেটে ঘি মেখে মিশ্রণ ঢেলে দিন। বরফির উপরে তবক ছড়িয়ে দিন। ঠাণ্ডা হলে চারকোণা করে কেটে নিন।

এইবেলা ডট কম/এমকে
 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
Loading...
 
 
 
Loading...
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক: সুকৃতি কুমার মন্ডল

Editor: ‍Sukriti Kumar Mondal

সম্পাদকের সাথে যোগাযোগ করুন # sukritieibela@gmail.com

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

   বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ:

 E-mail: sukritieibela@gmail.com

  মোবাইল: +8801711 98 15 52 

            +8801517-29 00 01

 

 

Copyright © 2017 Eibela.Com
Developed by: coder71