সোমবার, ১৯ অক্টোবর ২০২০
সোমবার, ৪ঠা কার্তিক ১৪২৭
সর্বশেষ
 
 
ভারত মহাসাগরের তলায় সরছে টেকটনিক প্লেট; হতে পারে প্রবল ভূমিকম্প
প্রকাশ: ০১:০৪ pm ২৯-০৫-২০২০ হালনাগাদ: ০১:০৪ pm ২৯-০৫-২০২০
 
এইবেলা ডেস্ক
 
 
 
 


এমনিতেই বিপদের শেষ নেই। মহামারীর জেরে লক্ষ লক্ষ মানুষকে হারাল বিশ্ব। এখনও কত দাপট দেখা বাকি আছে কে জানে! এরই মধ্যে বাংলাকে তছনছ করে দিয়ে গেল আমফান। কয়েকদিন আগে শোনা গেল, পৃথিবীর একটা অংশের নাকি ম্যাগনেটিক ফিল্ড দুর্বল হয়ে পড়ছে। এরই মধ্যে আরও এক উদ্বেগের খবর সামনে আসছে।

ভারত মহাসাগরের তলায় টেকটনিক প্লেট ভেঙে যাচ্ছে। সম্প্রতি গবেষকরা এই তথ্য আবিষ্কার করেছেন। অস্ট্রেলিয়া ও ভারতের মাঝে ওই টেকটনিক প্লেটে ফাঁক দেখা যাচ্ছে। প্রত্যেক বছর ০.০৬ ইঞ্চি বা ১.৭ মিলিমিটার করে সরে যাচ্ছে।

বিজ্ঞান বিষয়ক ওয়েবসাইট লাইভ সায়েন্সে জানিয়েছে, আট বছর আগে একবার ভারত মহাসাগরের নিচে ভূমিকম্প হয়েছিল। তার পর থেকেই ওই প্লেটের এই পরিবর্তন লক্ষ্য করছেন বিজ্ঞানীরা। ইনস্টিটিউট অফ আর্থ ফিজিক্স অফ প্যারিসের বিজ্ঞানীরাই এই তথ্য সামনে এনেছেন।

আপাতদৃষ্টিতে দেখলে এই দুটি প্লেটের সরে যাওয়ার গতি খুবই ধীর। কিন্তু এভাবেও চলতে থাকলে এক মাইল দূর যেতে দুটি প্লেটের ১০ লক্ষ বছর সময় লাগার কথা। দুটি প্লেটের আলাদা হয়ে যাওয়ার গতি কম হলেও বিজ্ঞানীরা এই বিষয়টি নিয়ে বেশ উদ্বিগ্ন। কারণ এভাবে প্লেট সরে যাওয়ায় ভূমিকম্পের কারণ হতে পারে। তবে অদূর ভবিষ্যতেই যে বড়সড় কোনও ভূমিকম্প হবে তা নিয়ে নিশ্চিতভাবে কিছু বলছেন না বিজ্ঞানীরা।

২০১২-তে এই প্লেটে ভূমিকম্প হয়েছিল। যার মাত্রা ছিল ৮। আর তার জেরেই এই ঘটনা। সাবমেরিন রিলিফ ও সিসমিক ডেটা থেকে এই তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে।

গবেষকরা জানাচ্ছেন, ওই অঞ্চলে এক বিশেষ ‘ফল্ট’ দেখা গিয়েছে। আর সেই ফল্ট হতে শুরু করেছে কয়েক মিলিয়ন বছর আগে। তার জেরেই ২০১২-তে ব্যাপক আকারের ভূমিকম্প হয়। আর এই দুই প্লেট যখন একটু একটু করে একে অপরের থেকে সরে যাবে, তখনও ভূমিকম্প হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। তবে অদূর ভবিষ্যতে এরকম কোনও বিযর্পয় হওয়ার সম্ভাবনা নেই বলেও জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা।

নি এম/

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 

 

E-mail: info.eibela@gmail.com

a concern of Eibela Ltd.

Request Mobile Site

Copyright © 2020 Eibela.Com
Developed by: coder71