মঙ্গলবার, ২৫ জুলাই ২০১৭
মঙ্গলবার, ১০ই শ্রাবণ ১৪২৪
সর্বশেষ
 
 
বাড়ছে চিনি-চা-হীরা-পিস্তলসহ অনেক পণ্যের দাম
প্রকাশ: ০৯:০৭ pm ০৪-০৬-২০১৫ হালনাগাদ: ০৯:০৭ pm ০৪-০৬-২০১৫
 
 
 


অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত ২০১৫-১৬ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে বেশ কটি পণ্যের ওপর আমদানি শুল্ক, সম্পূরক শুল্ক, আরোপ ও বৃদ্ধির প্রস্তাব করেন। একই সঙ্গে কয়েকটি সেবা খাত এবং পণ্যের ওপর ভ্যাট বাড়ানোর ঘোষণা দেন। ফলে ওই সব পণ্য ও সেবার গ্রহণের ক্ষেত্রে ভোক্তাকে আগের চেয়ে বেশি দাম দিতে হবে। এসব পণ্য ও সেবার খাতের মধ্যে উল্লেখযোগ্য:

চিনি: অপরিশোধিত চিনি আমদানিতে  বর্তমানে মেট্রিক টনে ২ হাজার টাকা শুল্ক আরোপিত আছে। এটিকে দ্বিগুণ করে চার হাজার টাকা করার প্রস্তাব দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী। একই সঙ্গে অপরিশোধিত চিনি আমদানিতে মেট্রিক টনে সাড়ে তিন হাজার টাকা বাড়ছে। বর্তমানে মেট্রিক টনে চার হাজার ৫০০ টাকার স্থলে আট হাজার টাকা করার প্রস্তাব দেয়া হচ্ছে। যা আগস্ট থেকে কার্যকর হবে।

সিম কার্ড: সিম কার্ডের ওপর সম্পূরক শুল্ক পাঁচ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে। বিদ্যমান ১৫ শতাংশের স্থলে ২০ শতাংশ করার প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। এর ফলে সিম কার্ডের মূল্য বাড়বে।

চা: আন্তর্জাতিক বাজারে চায়ের মূল্য কমে যাওয়ায় আমদানি ব্যাপক ভাবে বেড়ে গেছে। এ অবস্থায় সম্পূরক শুল্ক ৫ শতাংশ বাড়ানোর প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। ফলে চা আমদানিতে ১৫ শতাংশের বদলে ২০ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক দিতে হবে। এতে আমদানি করা চায়ের দাম বাড়তে পারে।

মাছ: মাছ, হিমায়িত চিংড়ী  এবং হিমায়িত খাদ্যে আমদানিতে নিরুৎসাহিত করতে সম্পূরক শুল্ক পাঁচ শতাংশ বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে। বর্তমানে ১৫ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক দিয়ে মাছ আমদানির সুযোগ থাকলেও সেটি ২০ শতাংশ করার প্রস্তাব দেয়া হয়েছে।  এর ফলে আমদানি করা মাছের দাম বাড়তে পারে।

মোটর গাড়ির টায়ার: মোটর গাড়ির টায়ারে চলতি অর্থবছরে কোন সম্পূরক শুল্ক নেই। তবে অর্থমন্ত্রী ২০ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক আরোপের প্রস্তাব দিয়েছেন। এতে মোটর গাড়ির টায়ারের দাম বাড়তে পারে।

হীরা: অমসৃণ হীরার শুল্ক ৫ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে। বর্তমানে ১৫ শতাংশ থাকলেও সেটি বাড়িয়ে ২০ শতাংশ করা হয়েছে। এতে হীরার দাম বাড়তে পারে।

ইমিটেশন জুয়েলারী: ইমিটেশন জুয়েলারী আমদানি নিরুৎসাহিত করতে ৫ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক বাড়ানোর প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। বিদ্যমান আইন অনুযায়ী ১৫ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক পরিশোধ করে ইমিটেশন জুয়েলারী আমদানি করা যায়। সেটি বাড়িয়ে ২০ শতাংশ করার প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। এতে ইমিটেশন জুয়েলারীর দাম বাড়তে পারে।

ব্লাড ট্রান্সফিউশন সেট: দেশিয় শিল্প রক্ষার্থে ব্লাড ট্রান্সফিউসন সেট দ্বিগুণ করার প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। ফলে এ ধরণের পণ্য আমদানিতে ৫ শতাংশের স্থলে ১০ শতাংশ করার প্রস্তাব দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী। একই সঙ্গে ইউরিন ড্রেনেজ সিস্টেম ব্যাগে সম্পূরক শুল্ক বাড়িয়েছে।এর ফলে ওই ধরণের পণ্যের দাম বেড়ে যাবে।

সিগারেট: সব ধরণের বিড়ি-সিগারেটের মহৃল্য স্তর ও সম্পূরক শুল্ক হার বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে। আবার বিড়ির পেপারের ওপরও ২০ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক আদায়ের প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। এতে বিড়ি সিগারেটের দাম বাড়বে।

সিরামিক বাথটাব: স্থানীয় সিরামিকের বাথটাব ও শাওয়ার ট্রে এর ওপর ২০ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক আরোপের প্রস্তাব করেছেন অর্থমন্ত্রী। এত ওই ধরণের পণ্যের দাম বাড়বে।

সফটওয়্যার:  দেশের সৃজনশীল প্রোগ্রামারদের সৃজনশীলতাকে এগিয়ে নেয়ার লক্ষ্যে তাদের উৎপাদিত সফটওয়্যারের  সুরক্ষায় ডাটাবেজ, অপারেটিং সিস্টেম ও ডেভেলপমেন্ট টুলস ব্যতীত অন্যান্য সফটওয়্যারের আমদানিতে ৫ শতাংশ শুল্ক আরোপের প্রস্তাব করা হয়েছে নতুন বাজেটে। এতে সফটওয়্যারের দাম বাড়তে পারে।

স্টিল ইংগট: আমদানি করা স্টিল ইংগটের প্রতিটনে নির্ধারিত প্রতি টনে আমদানি শুল্ক  পাঁচ হাজার টাকা থেকে বাড়িয়ে সাত হাজার টাকা করার প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। এর ফলে স্টিলের ব্যবহৃত বিভিন্ন পণ্যের দাম বাড়বে।

মোটরসাইকেল: মোটরসাইকেলের যন্ত্রপাতি আমদানিতে সম্পূরক শুল্ক ৩০ শতাংশের স্থলে ৪৫ শতাংশ করার প্রস্তাব করা হয়েছে। একই সঙ্গে মোটর সাইকেলের সিটের আমদানিতে পাঁচ শতাংশ সম্পূরক আরোপের প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। এতে  মোটরসাইকেলের দাম বাড়তে পারে।  এছাড়া ইলেকট্রিক ব্যাটারি চালিত মোটর গাড়ির  ওপর ২০ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক আরোপের প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। এর ফলে পণ্যটির দাম বাড়তে পারে। 

পিস্তল: রিভলবার ও পিস্তলের ক্ষেত্রে ৫০ শতাংশ শুল্ক বাড়ানো হয়েছে। বিদ্যমান ১০০ শতাংশের স্থলে ১৫০ শতাংশ করার প্রস্তাব দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী। এতে ওই ধরণের পণ্যের দাম বাড়বে।

রেশম পণ্য: দেশিয় রেশম শিল্পের সুরক্ষায় রেশম পণ্য  আমদানিতে ১৫ শতাংশ পর্যন্ত আমদানি ও সম্পূরক শুল্ক বাড়ানোর প্রস্তাব দেয়া হয়েছে বাজেটে। এতে রেশম জাতীয় পণ্যের দাম বাড়তে পারে।


এইবেলা ডটকম/ ইএস
 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক: সুকৃতি কুমার মন্ডল

Editor: ‍Sukriti Kumar Mondal

সম্পাদকের সাথে যোগাযোগ করুন # sukritieibela@gmail.com

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

   বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ:

 E-mail: sukritieibela@gmail.com

  মোবাইল: +8801711 98 15 52 

            +8801517-29 00 01

 

 

Copyright © 2017 Eibela.Com
Developed by: coder71