মঙ্গলবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৭
মঙ্গলবার, ১৬ই ফাল্গুন ১৪২৩
সর্বশেষ
 
 
বাজার সন্ত্রাস ও সন্ত্রাসী সিন্ডিকেট
প্রকাশ: ১১:৫৩ pm ১৭-০২-২০১৬ হালনাগাদ: ০৭:৫৭ am ১৯-০২-২০১৬
 
 
 


চন্দন সরকার।। 
বাজার সন্ত্রাস ও সন্ত্রাসী সিন্ডিকেটের শিকার বাংলাদেশের  অধিকাংশ  মধ্যবিত্ত ও নিন্ম মধ্যবিত্তের মানুষ; মধ্য-মধ্যবিত্ত ও নিন্ম মধ্যবিত্ত সবচেয়ে বেশী  ক্ষতিগ্রস্ত। বাজার সন্ত্রাস ও মুদ্রাস্ফীতির এর কারণে দরিদ্র মানুষদের পরিবার চালাতে হিম-শিম খেতে হচ্ছে প্রতিনিয়ত। তাদের খাদ্যের অভ্যাসের পরিবর্তন আনতে হচ্ছে, অথবা পুষ্টিহীন হতে হয় অথবা খাদ্য ছাড়া অন্যান্য দিক যেমন  Health,  শিক্ষা ইত্যাদির খরচ কমাতে হয়, অতীতের সঞ্চয় ভেঙে ফেলতে হয়। আর এই সমস্ত দুর্দশা কমাতে জমানো যে সম্পদ ছিল তা বেঁচতে হয়।

এই অবস্থাকে অর্থনীতিতে বলা হয় distress Sale or Force sale। অর্থাৎ খাদ্য ও খাদ্য বহির্ভুত নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের মূল্যের বৃদ্ধির কারণে দরিদ্র মানুষ নিঃস্ব থেকে হচ্ছে নিঃস্বতর, এমন কি তারা পরিণত হন ভিক্ষুকে। ঠিক একই অবস্থা নিম্ন আয়ের মানুষদের। আর মধ্যবিত্ত সমাজ তাদের অবস্থা আরও করুণ। তাদের মধ্যে – শিক্ষিত বেকার শ্রেণী, যারা এই বাজার ব্যবস্থা ও মূল্য সন্ত্রাসের কবলে পরে আস্তে আস্তে আরও নিচের দিকে নেমে যাচ্ছে প্রতিনিয়ত।

 
আর এগুলোর সুযোগ নেয় বেনিয়ার জাতেরা (Rent Seeker)  যারা এই সমস্ত শিক্ষিত – অর্ধ শিক্ষিত বেকার যুবকদের খুব সহজেই তাদের দলে ভেড়াতে পারে এবং এটা খুব সহজভাবেই করা সম্ভব। দুর্নীতি, বাজার সন্ত্রাস, সরকারী জমি কম দামে লিজ নেওয়া স্বাস্থ্য ও শিক্ষাকে বাণিজ্য করন এই বেনিয়া জাতেদের আয়কে বেশী করে তোলে এবং সুযোগ তৈরী করে দেয় রাষ্ট্র নিজে, আর কাজটি করে দিচ্ছেন খুব সুন্দর ভাবে। অর্থনীতির ভারসাম্য মার খাচ্ছে ।আমরা এক নিদারুণ সত্যকে বেমালূম ভুলে যাচ্ছি এড়িয়ে যাচ্ছি এবং বুদ্ধির মারপ্যাচে পরে, অর্থনীতিক স্থিতির কথা বলে আমাদেরকে শোষণ করতে দিচ্ছি প্রতিনিয়ত ।

বেনিয়ার জাতদের প্রচুর কালো টাকা বা অবৈধ টাকা কীভাবে খরচ করে।
এক অংশ তারা তাদের অপকর্ম ঢাকার জন্য ব্যয় করে অবৈধ টাকাকে বৈধ করার জন্য- অপর অংশ তারা ব্যয় করে অন্য অপশান্তি তৈরী করার কাজে। এই সমস্ত বেনিয়ার জাত শুধুমাত্র চালের দাম নিয়েই সিন্ডিকেট সন্ত্রাস করে না; এরা পেঁয়াজ, রসুন, আলু, ডাল, তেল, গুড়া দুধ, বাস ভাড়া, পানি, বিদ্যুত হয়ে ব্যক্তিগত খাতের দাবী সহ রাজনৈতিক অঙ্গনে পৌছে যায় আর এদের পেষণের করুণ শিকার সংখ্যাগরিষ্ঠ দরিদ্র গোষ্ঠী। আর এর ফলশ্রুতিতে আত্নঘাতি বোমা সংস্কৃতি বাড়ছে-যা জীবনের নিরাপত্তা সহ কালো বাজারী ও বেনিয়া জাতদের শক্তিকে আরও বাড়তে সাহায্য করছে। এ অবস্থা কি চলতেই থাকবে? এর থেকে পরিত্রাণের কি কোন উপায়ই নেই? যারা লুট করছে, মানুষের অধিকার নিয়ে যারা খেলছে, যারা আয় বৈষম্যকে বাড়াছে, বাজার  সন্ত্রাস করছে মানুষের ন্যায়-অধিকার বাস্তবায়ন হতে দিচ্ছে না, এই বেনিয়া জাতেদের সাথে নিঃস্ব মানুষের সংগ্রাম শুরু হতে বাধ্য। আর তখনই আমদের দেশে ভেনেজুয়ালার মতে হুগো শ্যাভেজদের মতো নেতৃত্ব সৃষ্টি হবে।অর্থাৎ সামাজিক-রাজনৈতিক ও বাজার সন্ত্রাসীদের সাথে মেহনাতি মানুষদের অধিকার আদায়ের যুদ্ধ অনিবার্য ভাবেই শুরু হবে।


লেখক:  নিবার্হী সম্পাদক, এইবেলা ডটকম এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও প্রাবন্ধিক।
 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
Migration
 
আরও খবর

 
 
 

News Room: news@eibela.com, info.eibela@gmail.com, Editor: editor@eibela.com

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

Copyright © 2017 Eibela.Com
Developed by: coder71