বৃহস্পতিবার, ১৯ জানুয়ারি ২০১৭
বৃহঃস্পতিবার, ৬ই মাঘ ১৪২৩
সর্বশেষ
 
 
দুই মন্ত্রী মন্ত্রিসভায় থাকবেন কিনা এই সিদ্ধান্ত নেবে সরকার
প্রকাশ: ০৪:৫৬ pm ২৭-০৩-২০১৬ হালনাগাদ: ০৬:১৬ pm ২৭-০৩-২০১৬
 
 
 


ঢাকা: খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী মোজাম্মেল হক মন্ত্রিসভায় থাকবেন কিনা এই সিদ্ধান্ত নেবে সরকার। এ্যাটর্নী জেনারেল মাহবুবে আলম বলেছেন,সরকারই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে। তবে মন্ত্রিসভায় থাকার বিষয়টির সঙ্গে নৈতিকতার বিষয় জড়িত।    

আদালত অবমাননার দায়ে সুপ্রীমকোর্টের আপীল বিভাগ দুই মন্ত্রীকে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা করে। দণ্ডিত হওয়ার পর মন্ত্রিসভায় থাকতে পারবেন কিনা এই প্রশ্ন দেখা দিয়েছে সর্বমহলে।

গত ৫ মার্চ এক আলোচনা সভায় যুদ্ধাপরাধী মীর কাসেম আলীর আপিলের রায় নিয়ে সংশয় প্রকাশ করে প্রধান বিচারপতিকে বাদ দিয়ে নতুন বেঞ্চ গঠন করে পুনঃশুনানির দাবি তোলেন মন্ত্রী কামরুল ও মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী মোজাম্মেল হক।

আপিল বিভাগ ওই বক্তব্যের জন্য আদালত অবমাননার রুল জারি করলে দুই মন্ত্রী নিঃশর্ত ক্ষমার আবেদন করেন। রোববার ওই আবেদন নাকচ করে প্রধান বিচারপতি নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগ দুই মন্ত্রীকে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে সাত দিনের কারাদণ্ড প্রদান করে। 

এই রুলের ওপর ‍শুনানিতে প্রধান বিচারপতি বলেন, বিচার প্রশাসনে হস্তক্ষেপ, কুৎসা রটানো ফৌজদারি আদালত অবমাননা। ডাকাতি মামলার অপরাধ যেমন ফোজদারি অপরাধ এটিও ফৌজদারি অপরাধ।

দুই মন্ত্রীকে আদালতে দোষী সাব্যস্ত করার পর তারা মন্ত্রী পদে থাকতে পারেন কিনা এ নিয়ে প্রশ্ন করা হয় এ্যাটর্নী জেনারেল মাহবুবে আলমকে। রোববার তিনি সাংবাদিকদের বলেন,এটি এই মুহূর্তে আমার পক্ষে বলা সম্ভব নয়। সংবিধানে এ ব্যপারে বিস্তারিত আছে বলে মনে হয় না। তবে বিষয়টি নৈতিকতার সাথে জড়িত। এটা সিদ্ধান্ত নেবে মন্ত্রিসভা।

এরশাদ সরকারের আমলে মন্ত্রী হাবিবুল্লাহ খান আদালত অবমাননার দায়ে দণ্ডিত হন বলে এ্যাটর্নী জেনারেল মাহবুব আলম জানান।

তিনি আরও বলেন, দুই জনের ব্যাপারে আদেশ দেওয়া হল। আদালত উল্লেখ করেছেন, অন্ততপক্ষে এই আদেশের প্রেক্ষিতে সারা দেশবাসী বুঝতে পারবে, আদালতের মর্যাদা ক্ষুন্ন করা কোনো নাগরিকের পক্ষেই উচিত নয়। এই হল ম্যাসেজ। রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ পদে নিয়োজিত দুজন মন্ত্রী, আদালত তাদেরও কোনো রকম ছাড় দেয়নি, অন্যান্য নাগরিক যারা আছেন, তাদের পক্ষে এটি বুঝে নেওয়া সম্ভব হবে আদালত অবমাননার ফল কি হতে পারে।

আগামী সাত দিনের মধ্যে জরিমানার অর্থ ইসলামীয়া চক্ষু হাসপাতাল ও লিভার ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশে জমা না দিলে দুই মন্ত্রীর এক সপ্তাহের বিনাশ্রম কারাদণ্ড ভোগ করতে হবে বলে এ্যাটর্নী জেনারেল জানান । তিনি বলেন,আগামীকাল সোমবার থেকে দিন গননা শুরু করা হবে।

এইবেলা ডটকম/আরটি/এসজি

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
Migration
 
আরও খবর

 
 
 

News Room: news@eibela.com, info.eibela@gmail.com, Editor: editor@eibela.com

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

Copyright © 2017 Eibela.Com
Developed by: coder71