সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০
সোমবার, ৬ই আশ্বিন ১৪২৭
সর্বশেষ
 
 
আগৈলঝাড়ায় সংখ্যালঘু পরিবারের উপর হামলা !
প্রকাশ: ১১:৩৭ pm ২৩-০৪-২০২০ হালনাগাদ: ১১:৩৭ pm ২৩-০৪-২০২০
 
বরিশাল প্রতিনিধি
 
 
 
 


গত ১৬ এপ্রিল-২০২০ বরিশালের জেলার আগৈলঝাড়া থানার অন্তর্গত পশ্চিম সুজনকাঠি (মল্লিক বাড়ী) গ্রামের এক সংখ্যালঘু পরিবারের উপর হামলা চালিয়ে ৪ জনকে আহত করেছে হামলাকারীরা (ভিডিও দেখুন)! 

https://www.facebook.com/gautom.halder.9/videos/pcb.2622380151348331/2622380004681679/?type=3&theater

ভয়াবহ করোনা আতংঙ্কে হিন্দুদের বাড়ির ভেতর দিয়ে ফেরি করতে নিষেধ করায় আগৈলঝাড়ায় সংখ্যালঘু পরিবারের উপর হামলা! আহত হয়েছেন ৪ জন সংখালঘু মহিলা ও পুরুষ! আহতরা চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে যেতে চাইলে পথ অবরোধ করে পুনরায় মারধর ও প্রাননাশের হুমকী দিয়েছে সন্ত্রাসীরা!

আগৈলঝাড়া থানা পুলিশর সহযোগিতায় তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেছে। 

আহত ও এলাকাসূত্রে জানা গেছে, উপজেলার পশ্চিম সুজনকাঠি (মল্লিক বাড়ী) গ্রামের দুধ বিক্রেতা মোঃ হারুন মল্লিককে গত বৃহস্পতিবার বাড়ির ভেতরে ঢুকে ফেরী করে দুধ বিক্রয় করতে গেলে তাকে নিষেধ করে ওই এলাকার মৃত রমেশ চন্দ্র কর এর স্ত্রী অঞ্জলী কর। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ধারালো অস্র ও শক্ত কাটের ডাল দিয়ে শুক্রবার সকালে দুধ কিক্রেতা হারুন মল্লিককের দুই পুত্র মোঃ হাসান মল্লিক (৩২) ও তার ছোট ভাই মোঃ হাবিব মল্লিক (৩০) লোকজন নিয়ে সংখ্যালঘু অঞ্জলী করের বাড়িতে হামলা চালায়।

এসময় তাদের ঘরে ঢুকে মারধর করে ওই সংখ্যালঘু পরিবারের অঞ্জলী কর (৫০), ও তার পুত্রবধূ ঝর্না কর (৩০), পুত্র প্রভাত কর (৩৫) কে আহত করে। এছাড়াও তার বড় পুত্র দৈনিক সাহসী বার্তা পত্রিকার আগৈলঝাড়া প্রতিনিধি অমিয় কর’কে মারধর করে আহত করে।

অঞ্জলী কর এর গলায় থাকা এক ভরি ওজনের চেইন ও প্রভাত কর এর গলায় থাকা ৮ আনা ওজনের চেইন ছিনিয়ে নেয়। এসময় ঝর্না কর’কে জোর করে তুলে নিতে চাইলে সংখ্যালঘু পরিবারে ডাক-চিৎকারে এলাকার লোকজন এসে তাদের উদ্ধার করে। ওই সময় হামলাকারীরা পালিয়ে গেলেও আহতরা চিকিৎসার জন্য গৈলা হাসপাতালে রওনা দিলে পথে মধ্যে তাদের আটক করে পূর্নরায় মারধর করতে থাকে। পথে হামলাকারীদের দেখেই সাংবাদিক অমিয় কর আগৈলঝাড়া থানায় ফোন করে জানালে এস.আই মোক্তার ঘটনাস্থালে গিয়ে তাদের উদ্ধার করে। হামলাকারীরা পুলিশের সামনে তাদের প্রাননাশের হুমকি দিয়ে পালিয়ে যায়। আহতদের আগৈলঝাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এঘটনায় সাংবাদিক অমিয় কর বাদী হয়ে আগৈলঝাড়া থানায় মামলা দায়ের করেন। সংখ্যালঘু পরিবারের লোকজন সাংবাদিকদের জানান, পূর্নরায় তাদের উপর হামলা হতে পারে এই ভয়ে তারা আতংঙ্কে রয়েছে। সংশ্লিষ্ট উধ্বর্তন কর্মকর্তাদের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তারা।

নি এম/

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 

 

E-mail: info.eibela@gmail.com

a concern of Eibela Ltd.

Request Mobile Site

Copyright © 2020 Eibela.Com
Developed by: coder71