শুক্রবার, ২৪ মার্চ ২০১৭
শুক্রবার, ১০ই চৈত্র ১৪২৩
সর্বশেষ
 
 
অযত্ন অবহেলায় জগন্নাথ হলের অক্টোবর স্মৃতি
প্রকাশ: ০৬:২৮ am ১৫-১০-২০১৬ হালনাগাদ: ০৬:২৮ am ১৫-১০-২০১৬
 
 
 


ঢাকা : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হলের অক্টোবর স্মৃতি ভবনে সংরক্ষিত ছাত্রদের বিভিন্ন জিনিসপত্রের প্রতিদিনই ভারী হচ্ছে ধুলার আস্তর

নথিপত্র যাচ্ছে উইপোকার পেটে। ভবনের নিচতলায় ছোট ২টি কক্ষে গাদাগাদি করে রাখা জিন্পিত্রে দেখা গেছে ধুলার মোটা আস্তর, কাগজপত্র-বইয়ের ওপর উইপোকার অবাধ বিচরণ।

ছাত্রদের অভিযোগ, কক্ষ দু’টি সবসময় বন্ধ রাখা হয়, ফলে জানালার বাইরে থেকে উঁকি দিয়েই অগ্রজদের স্মৃতি দেখতে হয় তাদের।

তবে হল প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক অসীম সরকার জানিয়েছেন, সেদিনের ঘটনার স্মৃতি সংরক্ষণে জাদুঘর নির্মাণের জন‌্য বিশ্ববিদ‌্যালয় কর্তৃপক্ষকে চিঠি দেয়া হয়েছে।জাদুঘর নির্মিত হলে সেগুলো সেখানে রাখা হবে।এ ব্যাপারে প্রশাসন খুবই আন্তরিক।

আজ থেকে ৩১ বছর আগে, ১৯৮৫ সালের ১৫ অক্টোবর। সন্ধ্যায় বিটিভিতে চলছিল ধারাবাহিক নাটক ‘শুকতারা’। নাটকে অভিনয় করেছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক নিরঞ্জন অধিকারীর ছোট ভাই, সংস্কৃত বিভাগের ছাত্র মন্ময় অধিকারী।

সেদিনও ছাত্র, কর্মচারী, অতিথি ও আশপাশের লোকজন মিলিয়ে প্রায় ২৫০-৩০০ জন জড়ো হয়েছিলেন জগন্নাথ হলের টেলিভিশন কক্ষে।

হলের প্রাদেশিক পরিষদের সংসদ ভবনের টেলিভিশন কক্ষটিই সংসদ হিসেবে ব্যবহৃত হতো। কক্ষের সামনের নিচু জায়গায় রাখা ছিল টিভি। ভবনটি তখন মেরামতের কাজ চলছিল।প্রাধ্যক্ষ অসীম সরকার বলেন, কক্ষটির সংস্কার চলছিল, ছাত্রদের সর্তক করা হয়েছিল। হঠাৎ বৃষ্টি হয়ে ছাদ ভেঙ্গে পড়ে।

ঘটনাস্থলেই মারা যান ৩৪ জন। হাসপাতালে মৃত‌্যু হয় ছয়জনের। নিহতদের মধ্যে ২৬ জন ছিলেন ছাত্র; কর্মচারী আর অতিথি ছিলেন ১৪ জন।

জগন্নাথ হল ট্র্যাজেডির সাক্ষী হলো কর্মচারী সুশীল দাস এখনও চাকরি করছেন। সেদিন ছাদ ধসে পড়ার কিছুক্ষণ আগে নিজের আসন ছেড়ে এগিয়ে বসেছিলেন, আর তাতে সামান্য আঘাত পেলেও প্রাণে বেঁচে যান তিনি।

সেদিনের স্মৃতি হাতড়ে সুশীল বলেন, আমি এক ছাত্রকে চেয়ার ছেড়ে সামনে চৌকিতে গিয়ে বসি। এর মিনিট খানেকের মধ্যেই ছাদ ভেঙে পড়ে। পুরো কক্ষ ধুলায় অন্ধকার হয়ে যায়।

আমার ছেড়ে আসা চেয়ারে বসা ছাত্র ওইদিন মারা যায়।সেদিনের ঘটনার স্মরণেই দিনটি বিশ্ববিদ্যালয় শোক দিবস হিসেবে পালিত হয়ে আসছে।

এইবেলাডটকম/এফএআর

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 

News Room: news@eibela.com, info.eibela@gmail.com, Editor: editor@eibela.com

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

Copyright © 2017 Eibela.Com
Developed by: coder71